মঙ্গলবার, ১৫ Jun ২০২১, ০৫:৫২ অপরাহ্ন

পটুয়াখালীতে স্বামীর দ্বিতীয় বিবাহ মেনে নিতে পারেননি প্রথম স্ত্রী। এজন্য স্বামীর বিশেষ অঙ্গ কেটে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ প্রথম স্ত্রী দুই সন্তানের জননী মোসা. হাসি আক্তারকে (২৬) আটক করেছে।

অসুস্থ ওই স্বামীকে প্রথমে পটুয়াখালী পরে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে পটুয়াখালী সদর উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের হকতুল্লা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত কবির তালুকদার পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ফোরম্যান পদে কর্মরত বলে জানা যায়।

পুলিশ জানায়, কবিরের প্রথম স্ত্রী হাসির ঘরে ১৩ বছরের ও ১ বছরের দুই ছেলেসন্তান রয়েছে। কিন্তু গোপনে কবির গলাচিপা উপজেলায় কবিতা নামে এক নারীকে বিয়ে করেন। সম্প্রতি প্রথম স্ত্রী হাসি দ্বিতীয় বিবাহের ঘটনা জানতে পারেন। এরপর থেকেই উভয়ের মধ্যে কলহ শুরু হয়।

এদিকে কবিরের দ্বিতীয় স্ত্রী গর্ভবতী হওয়ার বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি প্রথম স্ত্রী হাসি। মঙ্গলবার কবির হাসির বাসায় আসে এবং রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। কবির ঘুমিয়ে গেলে স্ত্রী হাসি তার পুরুষাঙ্গ কেটে নেয়। কবিরের ডাক-চিৎকার শুনে বাড়ির অন্যরা এগিয়ে এসে তাকে দ্রুত পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঝুঁকি মনে হওয়ায় তাকে বরিশাল পাঠানো হয়েছে।

সদর থানার ওসি আখতার মোর্শেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত স্ত্রী হাসিকে আটক করা হয়েছে। হাসির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কবিরের ভাই মিজানুর তালুকদার।

আরও পড়ুন