মঙ্গলবার, ১৫ Jun ২০২১, ০৫:৫৯ অপরাহ্ন

খুলনার উপকূলীয় উপজে’লা কয়রায় ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বসত বাড়ি, স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও ম’সজিদে হাঁটু সমান পানি জমেছে। কয়রা উপজে’লার নিম্নাঞ্চলে জোয়ারের নোনা পানি প্রবেশ করায় বাধ্য হয়ে হাঁটুপানিতে জুমা’র নামাজ আদায় করেছেন মু’সল্লিরা।

শুক্রবার (২৮ মে) দুপুরে জোয়ারের পানিতে নতুন করে কয়রার অনেক এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

কয়রা উপজে’লার মহারাজপুর ইউনিয়নের শিমলারাইট পশ্চিমপাড়া জামে ম’সজিদে হাঁটুসমান পানিতে মু’সল্লিরা জুমা’র নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে উপকূল বাসিন্দারা প্রকৃতি দু’র্যোগ থেকে রক্ষা পেতে দোয়া করেন তারা।

নামাজের দোয়া শেষে স্থানীয় বাসিন্দা সোহেল তানভীর বলেন, ইয়াসের প্রভাবে বেড়িবাঁধ ভেঙেছে। এতে অল্প জোয়ারে নোনা পানি ঢুকছে লোকালয়ে। হাঁটুসমান পানিতে লোকজন বসবাস করছেন।

ম’সজিদের ই’মাম হাফেজ মুজিবুর রহমান বলেন, জোয়ারের পানি ম’সজিদে প্রবেশ করায় আজকে জুমা’র নামাজ আগেভাগে শেষ করা হয়েছে।

মহারাজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিএম আব্দুল্লাহ আল মামুন লাবলু বলেন, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে বেড়িবাঁধ ভেঙেছে। এতে জোয়ারের পানি বিভিন্ন এলাকা ঢুকছে। বসত বাড়ি, স্কুল, কলেজ, ম’সজিদ, মাদরাসা প্লাবিত হচ্ছে।

আরও পড়ুন