বরফে পা পিছলে পাকিস্তানে চলে গেল ভারতীয় সেনা

আন্তর্জাতিক

পাক-ভারত সীমান্তে সব সময়ই উত্তেজনা পরিস্থিতি বিরাজ করে। তবে সম্প্রতি কাশ্মীর ও ভারতে বির্তকিত নাগরিক সংশোধনী আইন ইস্যুতে এই উত্তেজনায় ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে।

আর এমন পরিস্থিতিতে বরফে পিছলে আন্তর্জাতিক সীমা পেরিয়ে পাকিস্তানে চলে গেছেন এক ভারতীয় সেনা।

এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে।

সংবাদমাধ্যমটি জানায়, বরফে পা পিছলে পাকিস্তানে চলে যাওয়া ওই ভারতীয় সেনার নাম রাজেন্দ্র নেগি। তিনি একজন হাবিলদার। জম্মু ও কাশ্মীরের গুলমার্গ এলাকায় কর্তব্যরত ছিলেন তিনি।

গত ৮ জানুয়ারি এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনা সূত্র। এ বিষয়ে ইন্ডিয়া টুডে কে রাজেন্দ্র নেগির স্ত্রী রাজেশ্বরী জানান, স্বামীর কোনো খোঁজ পাচ্ছিলাম না। সীমান্তে ডিউটিতে আছেন এটাই জানতাম। বুধবার হঠাৎই আামকে ফোন করে প্রশাসন থেকে জানানো হয়, আমার স্বামী নিখোঁজ রয়েছেন। এর কিছুক্ষণ পর আবার তারা জানায়, বরফে পিছলে দুর্ঘটনাবশত সীমান্ত পেরিয়ে তিনি পাকিস্তানে চলে গেছেন।

রাজেশ্বরী বলেন, আমি খুবই দুশ্চিন্তায় আছি। স্বামীকে অক্ষত ফেরত পাব কিনা সে নিশ্চয়তা দিচ্ছে না কেউ। পাকিস্তান থেকে আমার স্বামীকে দ্রুত ফেরত আনার জন্য ভারতীয় সরকারকে আহ্বান জানাই।

নেগির স্ত্রীর এমন আকুতির বিষয়ে ভারতীয় সেনা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দুর্ঘটনাবশত পাকিস্তানে চলে যাওয়া ওই সেনাকে ফেরত আনতে ইতোমধ্যে সব ধরনের তৎপরতা শুরু করেছে ভারত। কিন্তু পাকিস্তানের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

২০০২ সালে গাড়োয়াল রাইফেল রেজিমেন্টে যোগ দেন রাজেন্দ্র নেগি। একমাস দেরাদুনে ছুটি কাটানোর পর অক্টোবরে তিনি কাজে যোগ দেন। নভেম্বরেই তাকে গুলমার্গে পাঠানো হয় বলে জানিয়েছে উত্তরাখণ্ডের দেরাদুনের অম্বিবালা সৈনিক কলোনীর এক বাসিন্দা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *