বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০২:৫৯ অপরাহ্ন

অ’বৈধভাবে কিডনি কেনাবেচা সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা মো. শহিদুল ইসলাম মিঠুসহ পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। গরীব ও অভাবী মানুষদের চিহ্নিত করে এবং তাদের অর্থনৈতিক দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে অর্থের বিনিময়ে কি’ডনি বিক্রি করতো এই চ’ক্র। রাজধানীর ভাটারা, বনশ্রী ও মিরপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফ’তার করা হয়।

বুধবার (২০ জুলাই) সকালে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব জানায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কি’ডনি কেনাবেচা করা এই চ’ক্রের সদস্য সংখ্যা ১৫ থেকে ২০ জন। প্রতিটি কি’ডনি প্রতিস্থাপনের জন্য চক্রটি ২০ হতে ২৫ লাখ টাকা নিতো। আর অসহায়-গরীব যাদের কাছ থেকে কিডনি নেয়া হতো তাদের দিতো সাড়ে চার লাখ টাকা।

চ’ক্রের মূল হোতা শহিদুল নিজের চিকিৎসার জন্য ভারতে গেলে সেখানে কিডনি প্রতিস্থাপনের রোগীদের ব্যাপক চাহিদা দেখতে পায়। পরে দেশে এসে সে নিজেই কিডনি বিক্রির অ’বৈধ ব্যবসা শুরু করে।

আরও পড়ুন