বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০১:৩১ অপরাহ্ন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ট্রেনের নিচে পড়েও কাটা পড়া থেকে বেঁচে গেছেন লিজা (২০) নামের এক গৃহবধূ। এ ঘটনার ২৮ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

শুক্রবার (২২ জুলাই) বিকেলে ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের আখাউড়া তিতাস নদীর সেতুর ওপর এ ঘটনা ঘটে। লিজা উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের বড় কুড়িপাইকার জুনায়েদ মিয়ার স্ত্রী।

লিজা তার ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে স্বামী ও ননদের সঙ্গে তিতাস রেলসেতু পার হচ্চিলেন। পূর্ব প্রান্তে আসার পর তারা দেখতে পান নোয়াখালীগামী আন্তঃনগর উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনটি কাছাকাছি চলে এসেছে। এ সময় স্বামী জুনাইদ ও ননদ নিরাপদে অবস্থান নিলেও লিজা হোঁচট খেয়ে রেললাইনে পড়ে যান। তবে উপস্থিত বুদ্ধি কাজে লাগিয়ে তিনি রেললাইনের মাঝামাঝি সোজা হয়ে শুয়ে পড়েন। তাকে অক্ষত রেখে ট্রেনটি তার ওপর দিয়ে চলে যায়। তিনি আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এ ঘটনার ভিডিও ধারণকারী আমজাদ ভূইয়া সাংবাদিকদের বলেন, ট্রেনটি চলে গেলে দেখি আল্লাহর অশেষ রহমতে মেয়েটির শারীরিকভাবে কোনো ক্ষতি হয়নি। তবে তিনি অচেতন হয়ে যান। উপস্থিত সবার সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়।

আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হিমেল খান জানিয়েছেন, চিকিৎসা নিয়ে ওই তরুণী বাড়িতে চলে গেছেন। মানসিকভাবে কিছুটা বিপর্যস্ত হলেও শীঘ্রই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যাবেন।

আখাউড়া রেলওয়ে থানার ওসি মাজহারুল করিম বলেন, বিষয়টি আমি ফেসবুকে দেখেছি। অনেক বড় বিপদ থেকে প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন ওই তরুণী। এ সময় পথচারীদের সতর্ক হয়ে পথ চলার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন