মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০১:৩১ অপরাহ্ন

ছিপছিপে দোহারা চেহারা। কাটা-কাটা চোখ, নাক, মুখ। ফিগার দেখে কে বলবে ৪০টি বসন্ত পার করে ফেলেছেন শিল্পা শেঠি। তাঁর ওয়ার্কআউট রুটিন আর যোগাসন প্রেমের কথা গোটা বিশ্ব জানে। এর সঙ্গে রয়েছে স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়া।

ওয়াকিবহাল মহল বলে, এই দুইয়ের মিশেলেই এমন আকর্ষণীয় ফিগার ২ সন্তানের জননী শিল্পার। ১৯৯৩ সালে ‘বাজিগর’ সিনেমা দিয়ে বলিউডে যাত্রা শুরু করেছিলেন। তাঁর সমসাময়িক অনেক নায়িকারা আজ সাইডলাইনের বাইরে। কিন্তু যত সময় গিয়েছে, নিজেকে পুরনো ওয়াইনের মতো মেলে ধরেছেন শিল্পা।

তাঁর সমসাময়িক অনেক নায়িকারা আজ সাইডলাইনের বাইরে। কিন্তু যত সময় গিয়েছে, নিজেকে পুরনো ওয়াইনের মতো মেলে ধরেছেন শিল্পা বড় পর্দায় অভিনয়, ছোটপর্দায় সঞ্চালনা এবং বিচারকের দায়িত্ব সামলানোর পাশাপাশি দক্ষতার সঙ্গে ২ সন্তানকে মানুষ করছেন শিল্পা। এত কিছু সামলে কখন শরীরচর্চার জন্য সময় বের করেন অভিনেত্রী?

একটি অনলাইন পোর্টালের খবর অনুযায়ী, দুপুরে বাচ্চারা ঘুমোলে ওয়ার্কআউট শুরু করেন শিল্পা। অভিনেত্রী বিশ্বাস করেন, স্বাস্থ্যকর জীবনধারা এবং পরিচ্ছন্ন খাদ্যাভ্যাসই তাঁর মসৃণ ব্যক্তিত্ব এবং সুন্দর চেহারার রহস্য। দেখে নেওয়া যাক কোন ডায়েট চার্টে এমন আকর্ষণীয় ফিগার ধরে রেখেছেন শিল্পা।

ব্রেকফাস্ট মাস্ট: শিল্পার ডায়েটে প্রাতরাশ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। পাতে থাকে এক বাটি আপেল, আম এবং বাদাম দুধ। সঙ্গে খান পোরিজ এবং দুটি সেদ্ধ বা স্ক্রাম্বল করা ডিম। একবার একটা সাক্ষাৎকারে শিল্পা বলেছিলেন, ‘সারা রাত খালি পেটে থাকার পর সকালের খাবারটা গুরুত্বপূর্ণ। এ সময় শরীরকে পর্যাপ্ত পুষ্টি দিতে হবে। প্রাতরাশ এড়িয়ে যাওয়া মস্তিষ্ক এবং শরীরের জন্য ভালো কাজ নয়’।

পেট ভরা থাকবে: উপোস করতে রাজি নন শিল্পা। পেটে খিদে থাকাটা তাঁর না পসন্দ। শিল্পার মতে, পেট সবসময় ভরা রাখতে হবে। অভিনেত্রী সুষম খাদ্য গ্রহণে বিশ্বাসী।

একইসঙ্গে ওজন কমাতে তাঁর হাতিয়ার নারকেল দুধ। তাছাড়া এতে থাকা ল্যাকটোজ মেজাজও ফুরফুরে রাখে। শিল্পার কথায়, ‘ডায়েটে এমন খাবার রাখতে হবে যেটা শরীরকে পরিপূর্ণ রাখবে। একই সঙ্গে মাথায় রাখতে হবে সেই খাবার যেন সঠিক ওজন বজায় রাখে এবং ত্বকে প্রাকৃতিক আভা এনে দেয়’।

চিনির বিকল্প: ‘চিনি কম’। এটাই শিল্পার ফিটনেস রহস্য। সাদা চিনি ছুঁয়েও দেখেন না। বদলে মধু কিংবা গুড় খান। ‘অতিরিক্ত চিনি খাওয়া ছাড়ুন, পরিষ্কার খান এবং গতকালের চেয়ে ফিট হয়ে উঠুন’, এটাই শিল্পা শেট্টির ফিটনেস মন্ত্র।

রাতের খাবার: সন্ধ্যে সাড়ে সাতটার মধ্যেই রাতের খাবার খেয়ে নেন শিল্পা। কোনও পার্টি বা নিমন্ত্রণ বাড়িতে গেলেও এর অন্যথা হয় না। তবে শিল্পার রাতের খাবার খুব সামান্য। স্যুপ, চাপাটি এবং অল্প সবজি, ব্যস। রাতের খাবার যাতে হালকা হয় এবং অতিরিক্ত ক্যালোরিযুক্ত না হয়ে যায়, সেদিকে কড়া নজর রাখেন শিল্পা।

আরও পড়ুন