বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১১:১৭ অপরাহ্ন

আখাউড়া তিতাস ব্রিজ রেললাইন ধরে হাঁটতে গিয়ে চলন্ত ট্রেনের নিচে পড়ে গেলেন এক তরুণী। সেখান থেকে অক্ষত অবস্থায় বেঁচেও ফিরলেন তিনি। মৃ’ত্যুর হাত থেকে এমন আশ্চর্যভাবে বেঁচে ফিরতে দেখে বিস্মিত হয়েছেন সবাই।

স্বামীর সাথে আর ননদের সাথে ঘুরতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। ট্রেন যখন উপর দিয়ে চলে গেছে সকলে ভেবেছিলেন হয়তো সে মৃত্যুবরণ করেছে। ‌তখন দেখা গেল কিছুই হয়নি তার। ট্রেন চলে গেলে অচেতন অবস্থায় তার সাথে থাকা স্বামীসহ লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এভাবে তাঁকে বেঁচে ফিরতে দেখে স্বস্তির শ্বাস ফেলেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

ওই সময়ের একটি ভিডিও এরইমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এর তা দেখে গা হিমহিম অবস্থা নেটিজেনদেরও। তারাও ভিডিওর শেষ দেখে হাঁফ ছেড়েছেন। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নোয়াখালী অভিমুখী উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে এই ঘটনা ঘটে। তরুনী আখাউড়া উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়ন বড় কুড়িপাইকা এলাকার গাজী মুর্শিদ মিয়ার ছেলে গাজী জুনায়েদ (২২) এর স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ওই তরুণী বিকালে স্বামী ও ননদের সাথে মিনি কক্সবাজার খ্যাত তিতাস নদীর উপর নির্মিত তিতাস রেল ব্রীজের উপর ঘুরতে যায়। এক পর্যায়ে তারা ব্রীজের উপরে অবস্থান করাকালীন ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নোয়াখালী গামী উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেন দেখতে পেয়ে তারাহুরো করে রেলব্রীজ পাড় হওয়ার সময় ছিটকে নিচে পরে যায়। এ সময় ট্রেনটি তার উপর দিয়ে চলে গেলেও অলৌকিক ভাবে বেঁচে ফিরেন এই তরুণী। পরে ওই তরুণীকে উদ্ধার করে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়িতে চলে যায়।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে আখাউড়া রেলওয়ে থানার ওসি মাজহারুল করিম বলেন, আমারা ঘটনার খবর শুনতে পেয়ে সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। পুলিশ যাওয়ার আগেই তরুনীর সাথে থাকা লোকজন তাকে নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। পরবর্তীতে জানতে পারি হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়িতে চলে যায় তারা। তিনি আরো বলেন, একটি বড় দূর্ঘটনা থেকে মেয়েটি রক্ষা পেয়েছে। যাঁরাই এখানে আসে তাদেরকে আরো সর্তক অবলম্বন করতে হবে। আমাদের পুলিশে নিয়মিত টহল রয়েছে এখানে। ঈদসহ যেকোন উৎসবে দূর্ঘটনা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করে থাকি।

আরও পড়ুন