বৃহস্পতিবার, ০৭ Jul ২০২২, ০১:৩৪ অপরাহ্ন

স্ত্রী ও সংসার ফেলে পরকী’য়ায় মেতে উঠেছিলেন স্বামী। বাড়িতেও নিয়মিত আসতেন না। শেষপর্যন্ত হাতেনাতে প্রেমিকার সঙ্গে স্বামীকে ধরে ফেলল স্ত্রী। অ’ন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখতে পেয়েই স্বামী ও তার প্রেমিকাকে বেধড়ক মা’রধর করল স্ত্রী।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছে। সোমবার বিকেলে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কাঁকসায় তীব্র উত্তেজনা ছড়ায়। পু’লিশ দুই অভিযুক্তকেই থা’নায় নিয়ে যায়।

তাদের শাস্তির দাবি করেছে পরিবারের অন্য সদস্যরা। জানা গেছে পশ্চিম বর্ধমান জেলার কাঁকসার রথতলার বাসিন্দা তারাপ্রসাদ মণ্ডল। পেশায় মানকর হাসপাতালের অ্যাম্বুল্যান্স চালক।

তারাপ্রসাদের স্ত্রী’‌র অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে প’রকীয়ায় মজেছিল তার স্বামী। দশ বছর ধরে ঠিকমতো তারাপ্রসাদ বাড়িতে আসত না বলে দাবি করেছে তার শ্যালক।

পরিচিতদের মাধ্যমে তাঁরা খবর পেয়েছিলেন যে কাঁকসার সুভাষপল্লি এলাকার একটি বাড়িতে ওই মহিলাকে নিয়ে মাঝেমধ্যেই রাত কাটাতেন তারাপ্রসাদ। সেই খবর পেয়ে সোমবার বিকেলে ওই বাড়িতে হানা দেয় তারাপ্রসাদের স্ত্রী ও তাঁর ভাই।

সেখানে দু’জনকে অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখে ফেলেন তিনি। এরপরই বেল্ট দিয়ে স্বামীকে মারতে শুরু করেন। রেহাই পাননি স্বামীর প্রেমিকাও। তাকেও মা’রধর করেন তারাপ্রসাদের স্ত্রী। তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে তাঁর স্বামী অন্য মহিলার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন।

একদিন তারাপ্রসাদের ফোনে ওই মহিলা ফোন করেছিলেন। সেই ফোন ধরতেই স্ত্রীকে বেল্ট দিয়ে মেরেছিল তারাপ্রসাদ। তারই বদলা নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্ত্রী। দুই পরিবারই তারাপ্রসাদ ও তার প্রেমিকার শাস্তির দাবি করেছেন। – আজকাল

আরও পড়ুন