শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৫৫ পূর্বাহ্ন

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব এবং শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে দুর্নীতির দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর পর মন্ত্রীর বাসা থেকে বেশ কিছু নথিপত্র পান। সেই নথিপত্রের সূত্র ধরে মডেল, অভিনেত্রী অর্পিতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ে বাড়িতে অভিযান করে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

শুক্রবার রাতে দক্ষিণ কলকাতার এক অভিজাত আবাসনে অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) উদ্ধার করে ২০ কোটি রুপি। ইডি জানায়, মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ‘ঘনিষ্ঠ’ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে টাকা উদ্ধারের পরে তা নিয়ে যাওয়ার জন্য এ বার ট্রাক নিয়ে আসা হয়েছে। অর্পিতার ফ্ল্যাটে পাওয়া টাকা ট্রাঙ্কে বোঝাই করা হচ্ছে।

আনন্দ বাজারের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, শুক্রবার অর্পিতার ফ্ল্যাটে তল্লাশি চলাকালীন ‘টাকার পাহাড়’ আবিষ্কার করেন তদন্তকারীরা। সেই টাকা গুনতে ব্যাংকর্মীদের সাহায্য নেওয়া হয়। আনা হয় টাকা গোনার মেশিন। শনিবার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অর্পিতার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে ২০ কোটি ২১ লক্ষ টাকা। সেই টাকা নিয়ে যাওয়ার জন্য ট্রাক ভর্তি ট্রাঙ্ক নিয়ে আসে রিজার্ভ ব্যাংক। উদ্ধার হওয়া টাকা ট্রাঙ্কে বোঝাই করে তোলা হয় ট্রাকে। ইডি ওই বিপুল অর্থ বাজেয়াপ্ত করেছে। ট্রাকে ট্রাঙ্কগুলিতে নির্দিষ্ট নম্বর দেওয়া ছিল। হিসাবে সুবিধার জন্য ৫০০ এবং দু’হাজার টাকার নোটের জন্য আলাদা আলাদা ট্রাঙ্ক রয়েছে। ট্রাকে ছিল প্রায় ৪০টি ট্রাঙ্ক।

পাশাপাশি অর্পিতার ওই ফ্ল্যাটে আরও সম্পত্তির হদিস পাওয়া গিয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় সম্পত্তির একাধিক নথি উদ্ধার হয়েছে সেখান থেকে। এ ছাড়াও ৫৪ লক্ষ টাকার বিদেশি মুদ্রাও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। অর্পিতার ওই ফ্ল্যাটে স্কুল শিক্ষা দফতরেরও কিছু নথি পাওয়া গিয়েছে। এমনকি টাকার স্তূপের মধ্যেই পাওয়া গিয়েছে উচ্চশিক্ষা দফতরের খাম! ইডি সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন