শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন

নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে শাশুড়িকে নিয়ে পা’লিয়ে বিয়ে করার ঘটনায় শ্বশু’রের করা মা’মলায় সাজাপ্রাপ্ত জামাই আয়াতুল ইসলামকে (৩৩) গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ।

২০১১ সালে করা এ মামলায় ২০১৩ সালে আয়াতুলকে দেড় বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত। পাশাপাশি দুই হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়। জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়। রায়ের পর থেকেই সে পলাতক ছিল। গ্রেফতারকৃত আয়াতুল মোহনগঞ্জ উপজেলার সমাজ-সহিলদেও ইউনিয়নের মেদিপাথরখাটা গ্রামের শাহ জামালের ছেলে।

রোববার (২৪ জুলাই) রাত সাড়ে দশটার দিকে জেলার আটপাড়া উপজেলার কৃষ্ণপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে মোহনগঞ্জ থানা পুলিশ। অভিযানে মোহনগঞ্জ থানার এসআই মমতাজ উদ্দিনের নেতৃত্বে এএসআই এমরুল রশিদসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা অংশ নেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, একই গ্রামের মতি মিয়ার মেয়ে মরিয়মকে বিয়ে করে আয়াতুল। এক পর্যায়ে শাশুড়ি নাসরিনের সাথে অ’নৈতিক সম্পর্ক গড়ে তুলেন। পরে শাশুড়িকে নিয়ে পা’লিয়ে সিলেটে গিয়ে বিয়ে করে কয়েক মাস তারা একত্রে বসবাস করেন। এ ঘটনায় শ্বশুর মতি মিয়া বাদী হয়ে আয়াতুলকে আসামি করে মোহনগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। সম্প্রতি এ মামলার রায় ঘোষণা করেন আাদালত। তবে বছর দেড়েক আগে মামলার বাদী মতি মিয়া মারা গেছেন বলে জানান এলাকাবাসী।

মোহনগঞ্জ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার সকালে আায়তুলকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

আরও পড়ুন