সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৪২ অপরাহ্ন

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা না পেয়ে রাস্তায় সন্তান প্রসব করলেন একজন দরিদ্র মা। মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) রাত ১২টার দিকে বরগুনা শহরের পশু হাসপাতাল সড়কে এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় নবজাতক আশঙ্কামুক্ত হলেও প্রসূতি নারীর অবস্থা সংকটাপন্ন। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

বরগুনা সদর উপজেলার ফুলঝুরি এলাকার দরিদ্র রিকশা চালক ইব্রাহিমের স্ত্রী রীমা আক্তার প্রসব বেদনা নিয়ে মঙ্গলবার সকালে বরগুনা সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। ওই দিনই সন্ধ্যার পর তার প্রসববেদনা শুরু হয়। প্রসববেদনা নিয়ে রাত পর্যন্ত তিনি হাসপাতালে কাতরাচ্ছিলেন। কিছুক্ষণ পরে বরগুনা সদর হাসপাতালের দায়িত্বরত ডাক্তার-নার্সরা তাকে বরগুনা পৌরসভার বটতলা এলাকার আল রাজি প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যেতে বলেন। তাৎক্ষণিক রীমাকে আল রাজি ক্লিনিকে নিয়ে যান স্বজনরা। বেসরকারি ওই ক্লিনিকে গেলে সেখানেও চিকিৎসা সেবা দিতে অস্বীকৃতি জানান কর্তৃপক্ষ।

এরপরই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন বরগুনা জেলা যুবলীগের একজন কর্মী আবু হানিফ দোলন। হাসপাতালসহ একাধিক বেসরকারি ক্লিনিকের সঙ্গে কথা বলেও প্রসূতি মা লিমা আক্তারের চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে ব্যর্থ হন। এমন পরিস্থিতিতে শহরের পশু হাসপাতাল রাস্তায়ই একটি ফুটফুটে ছেলে সন্তান প্রসব করেন তিনি। পরে জেলা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অ্যাম্বুলেন্স যোগে বরিশালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

বরগুনা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সোহরাব হোসেনের সঙ্গে কথা বলেন, প্রথমে নরমাল ডেলিভারির চেষ্টা করা হয়েছিলো। পরে নার্সদের পরামর্শে তারা ডাক্তারদের না জানিয়েই সন্তান প্রসবের জন্য অন্যত্র চলেন যান। এ ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে শহরে। স্থানীয়রা এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন