শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

অবসরে কিংবা মুখের ব্যায়াম করতে অনেকেই চুইংগাম চিবিয়ে থাকেন। তবে চুইংগাম চিবানোর মাঝে অনেকেই মজার একটি কাজ করেন। সেটি হচ্ছে বাবল ফুলানো। আপনি এই কাজটি কোনো কারণ ছাড়া করলেও বাবল ফুলিয়ে লাখ টাকা আয় করছেন এক জার্মান তরুণী। খবর টাইমস নাউ নিউজের।

খবরে বলা হয়, ওই জার্মান তরুণীর নাম জুলিয়া ফোরাত। জুলিয়ার এক আশ্চর্য প্রতিভা আছে। তিনি একসঙ্গে ৩০টির বেশি চুইংগাম চিবোতে পারেন। সেই চুইংগাম চিবিয়ে আবার বিশালাকার বাবলও ফোলাতে পারেন তিনি।

খবরে আরও বলা হয়, জুলিয়ার ফোলানো এক একটি বাবলের আকার কখনো কখনো তার মাথার আকারের দ্বিগুণেরও বড় হয়। আর সেই বিচিত্র বাবলের ছবি এবং ভিডিও তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় অজানা মানুষ জনকে বিক্রি করেন তিনি। এভাবেই মাসে গড়ে ৭০০ ইউরো আয় হয় তার। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬৭ হাজার টাকা।

তবে অনেক মাসে তার আয় বেড়ে যায়। তখন তা গিয়ে দাঁড়ায় হাজার ডলারের বেশি। তবে এর জন্য তার খরচ হয় মাত্র ৫ ডলার। তবে এই অভিনব ব্যবসা শুরুর কথা আগে নিজের মাথায় আসেনি। জুলিয়ার বিরল প্রতিভা দেখে মজা করেই তার এক বন্ধু বলেছিলেন, তুমি এগুলোর ছবি তুলে বিক্রি করতে পারো। সেখান থেকেই শুরু।

এরপরে সোশ্যাল মিডিয়ার মাই.ক্লাব নামক সাইটে ছবি এবং ভিডিও বিক্রি করতে শুরু করেন জুলিয়া। খুব দ্রুতই প্রচুর সংখ্যক ভক্ত তৈরি হয়ে যায় তার। অনেক সময় ভোক্তাদের কাছ থেকে কাস্টমাইজড কন্টেন্টের অর্ডার আসে। যেখানে পোশাক, বাবলের আকার এবং ক্যামেরার দৃষ্টিকোণ থাকে আলাদা।

তবে বাবল ফুলিয়ে বিশাল টাকা আয় করলেও এটিই জুলিয়ার প্রাথমিক পেশা নয়। তিনি পেশায় একজন মার্কেটিং বিশেষজ্ঞ। স্থাপত্য এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিগ্রি রয়েছে তার ঝুলিতে। তবে আজব এই কাজ দারুণ উপভোগ করেন বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন