শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন

গোপনে বিয়ে, অতঃপর প্রকাশ্যে কাদা-ছোড়াছুড়ি করে আলোচনায় এসেছিলেন সংগীতশিল্পী ইলিয়াস হোসাইন ও মডেল-অভিনেত্রী সুবহা শাহ হুমায়রা। তাদের দাম্পত্য কলহ আদালত পর্যন্ত গড়ায়। তবে সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে নি’র্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় আপস করেছেন সুবহা।

বুধবার (২৭ জুলাই) ঢাকার নারী ও শিশু নি’র্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক আবেরা সুলতানা খানম মামলা থেকে ইলিয়াস হোসাইনকে খালাস দেন।

এদিকে গত মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) সকালে সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে হেয় করার অভিযোগে ফেসবুকে দীর্ঘ একটি স্ট্যাটাস দেন সুবহা।

তিনি লেখেন, ৫-৬ মাস ধরে ইলিয়াসের পরিবার আমার পরিবারকে নিয়ে মীমাংসার জন্য আমাকে বলছিল। তাই আমি তাদের সঙ্গে মীমাংসা করেছি এবং কেস তুলে নিয়েছি, সেও (ইলিয়াস) তাই করেছে। যা হয়েছে দুজনের জীবনের ভালোর জন্যই হয়েছে।’

সুবহা আরও লিখেছেন, ‘দেনমোহরের টাকা আর কিছু ক্ষতিপূরণ দিয়ে সাধু হওয়ার চেষ্টায় সামাজিকভাবে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করেই যাচ্ছে। দেনমোহরের টাকা দিয়ে এত নাটক করার কি আছে? না দিতে পারলে মীমাংসার সময়েই বলত, আমরা দিতে পারব না। কিন্তু তার পরিবার তখন এই কথাগুলো বলেনি। শুধুমাত্র আমাকে ছোট করার জন্যই এসব বলা এবং করা হচ্ছে।’

এদিকে সুবহার এমন মন্তব্যকে মিথ্যাচার হিসেবে উল্লেখ করেছেন ইলিয়াস।

তিনি জানান, আমার পরিবার নিয়ে সুবহা মি’থ্যাচার করছে। আমার পরিবারের কেউই তার সঙ্গে যোগাযোগ করেনি, এমনকি তাকে সরাসরি কখনও দেখেওনি।’

ইলিয়াস আরও বলেন, ব্যবসা নিয়ে আমি ব্যস্ত আছি। তাই এই ঝামেলা থেকে দ্রুত মুক্ত হতে চেয়েছি। এজন্য সুবহাকে ২০ লাখ টাকা দিয়েছি (সুবহা ১০ লাখ টাকার কথা উল্লেখ করেছেন)। এই খবর প্রচার হওয়ায়, সে হয়তো লজ্জা পেয়ে আমাকে ছোট করছে।’

ইলিয়াসের ভাষ্য, ‘সুবহার কাছে অনুরোধ, সে যাতে মিথ্যাচার না করে। এতে আমি খুবই বিব্রত। সে তার জীবন নিয়ে ভালো থাকুক, আমি আমার মতো আছি।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১ ডিসেম্বর পারিবারিক আয়োজনে বিবাহবন্ধনে আবন্ধ হয়েছিলেন ইলিয়াস-সুবহা। তবে মাস না পেরুতেই সেই সংসারে ভাঙনের সুর বাজে। এর পরের চিত্র মোটামুটি সবার জানা।

আরও পড়ুন