মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১০:১২ পূর্বাহ্ন

ঢাকাই চলচ্চিত্রের এ প্রজন্মের সম্ভাবনাময়ী চিত্রনায়িকা তানহা মৌমাছির বাবা জয়নাল আবেদীন জিনু পৌরসভা নির্বাচনে ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জামানত হারিয়েছেন। তিনি জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি পৌরসভা নির্বাচনে ৯ নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থী ছিলেন।

প্রাপ্ত ভোটের ১২. ৫ শতাংশের কম ভোট পাওয়ায় মৌমাছির বাবার জামানত বাজেয়াপ্ত হয়। এই পৌরসভায় ভোট গণনা শেষে বেসরকারি ফলাফলে পাঁচবিবি পৌরসভায় দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব।

পাঁচবিবি পৌরসভা নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, কোনো প্রার্থী প্রাপ্ত ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগের কম ভোট পেলে তার জামানত বাজেয়াপ্ত হয়। এই হিসাবে ওই ওয়ার্ডের কয়েকজন প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

জামানত বাজেয়াপ্তের তালিকায় জয়নাল আবেদীন জিনুও রয়েছেন। ৯ নম্বর ওয়ার্ডে দুই হাজার ৪৫৩ ভোটের মধ্যে মোট ভোট পড়েছে এক হাজার ৭৭২টি। এর মধ্যে নায়িকা তানহা মৌমাছির বাবা জয়নাল আবেদীন জিনু (উট পাখি) পেয়েছেন ১২৬ ভোট, একই ওয়ার্ডে কাওসার মণ্ডল (পানির বোতল) পেয়েছেন ৫৫ ভোট, রুহুল আমিন (টেবিল ল্যাম্প) পেয়েছেন ৮৬ ভোট। তাদের তিনজনেরই জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

এর আগে, সীমানা জটিলতা মামলার কারণে দীর্ঘ সাড়ে ১১ বছর পর বুধবার (২৭ জুলাই) পাঁচবিবি পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে একটানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

পাঁচবিবি পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার হুমায়ন কবীর বলেন, নির্বাচনী মাঠে কোনো প্রার্থীরই কোনো অভিযোগ ছিল না, তার পরও শেষ পর্যন্ত সর্বোচ্চ নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পন্ন করা হয়েছে। নিরাপত্তার জন্য পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব ও আনসার ব্যাটালিয়নের বিপুলসংখ্যক সদস্য ছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করে একটি অবাধ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দিয়েছেন।

আরও পড়ুন