মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৭:২৪ পূর্বাহ্ন

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় পুলিশের সোর্স পরিচয়ে নিরীহ মানুষজনকে মিউজিক বাজিয়ে গানের তালে তালে নেচে মধ্যযুগীয় কায়দায় নি’র্যাতনের অ’ভিযোগ উঠেছে যুবক শাহআলমের বি’রুদ্ধে। ইতোমধ্যে তার এমন একটি নি’র্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভা’ইরাল হয়েছে।

শুক্রবার (২৯ জুলাই) বিকেলে ফেসবুকে পোস্ট করা নি’র্যাতনের ওই ভিডিওটি আপলোড দিয়ে বলা হয়, সোনারগাঁ থানার এক এএসআই এর সোর্স পরিচয় দিয়ে বু’ক ফু’লিয়ে নিরীহ মানুষের ওপর বর্বর নি’র্যাতন করে যাচ্ছেন শাহ আলম। কেউ চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তার ট’র্চার সে’লে নিয়ে মিউজিক বাজিয়ে গানের তালে তালে মধ্যযুগীয় কায়দায় অ’মানবিক নি’র্যাতন চালানো হয়।

৪৬ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, অ’ভিযুক্ত শাহআলম একটি কক্ষে উচ্চ শব্দে গান বাজিয়ে মিউজিকের তালে তালে পে’টাচ্ছেন আর নাচছেন। কিছুক্ষণ পর পর নেচে উল্লাস করছেন আর পে’টাচ্ছেন।

শাহআলম বর্তমানে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় খন্দকার প্লাজার পাশে তার বোনের বাড়িতে থাকেন। মাঝে মধ্যে একই উপজেলার চিলারবাগ এলাকায় নানাবাড়িতেও তিনি থাকেন।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের সোর্স পরিচয় দিয়ে শাহ আলম নীরিহ যুবকদের আ’টকে রেখে মু’ক্তিপণ বাবদ টাকা হাতিয়ে নিয়ে পরবর্তীতে পুলিশের মাধ্যমে ডা’কাতিসহ বিভিন্ন মা’মলায় জড়িয়ে তাদের হ’য়রানি করেন। শাহ আলমের বি’রুদ্ধে এলাকায় ইয়াবা, ফে’নসিডিলসহ বিভিন্ন মা’দক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকারও অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাফিজুল ইসলাম সময় সংবাদকে বলেন, শাহ আলম পুলিশের সোর্স নয়। পুলিশকে জড়িয়ে মি’থ্যা অ’পপ্রচার করা হচ্ছে। সে তালিকাভুক্ত মা’দক ব্যবসায়ী এবং ডা’কাতির সঙ্গে জড়িত।

ওসি হাফিজুল ইসলাম আরও বলেন, ভিডিওটি আমি দেখেছি। আজই তাকে ডাকাতি মামলায় গ্রে’ফতার করে আদালতে চালান করে দিয়েছি। তিনি যাকে পেটাচ্ছেন তিনিও একজন ডা’কাত। তাদের দুজনের বিরুদ্ধে অন্তত ১০/১৫টি মামলা আছে এবং অনেকবার তারা জেলও খেটেছেন।

আরও পড়ুন