বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০২:০৯ অপরাহ্ন

মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক ফখরুল ইসলাম (৫৫) শ্বা’সরু’দ্ধ করে হ’ত্যার পর লা’শ গাছে ঝু’লিয়ে আ’ত্মহ’ত্যার নাটক সাজিয়েও শেষ রক্ষা হলো না খু’নিদের। ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুলিশ হ’ত্যায় জ’ড়িত নিহ’তের ছেলেসহ ৪ আসামীকে গ্রে’ফতার করেছে।

এদিকে ঘটনার পর ফখরুল ইসলামের স্ত্রী দিলারা বেগমকে বৃহস্পতিবার বিকেলে নিজ এলাকা থেকে বিয়ানীবাজারের দিকে পা’লিয়ে যাওয়ার সময় দৌলতপুর বাজার সংলগ্ন কানলি ব্রিজ থেকে পুলিশ তাকে গ্রে’প্তার করে। শুক্রবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে পুলিশ তাকে কারাগারে প্রেরণ করেছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ আদালতের হাজির করে ৪ জনের রি’মান্ডের আবেদন জানালে আদালত উজ্জল আহমদের ২ দিন এবং মস্তাব উদ্দিনের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

গ্রেফ’তারকৃত আসামীরা হচ্ছে- নিহত অটোরিকশা চালক ফখরুল ইসলামের স্ত্রী দিলারা বেগম (৪৫), ছেলে উজ্জল আহমদ (২২), সোহাগ মিয়ার ছেলে সেলিম উদ্দিন (৪৫), মুত সুনু মিয়ার ছেলে মস্তাব উদ্দিন (৪৪) ও বকুল মিয়ার ছেলে কবির আহমদ (৪২)।

পুলিশ ও নিহতের বোন সুফিয়া বেগমের থানায় রুজু করা হ’ত্যা মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ইটাউরী গ্রামের সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক ফখরুল ইসলামের স্ত্রী দিলারা বেগম পরপুরুষ আ’সক্ত চরি’ত্রহী’ন প্রকৃতির মহিলা। এ নিয়ে প্রায়ই স্ত্রীর সাথে ফখরুল ইসলামের ঝগ’ড়াঝা’টি হতো। এসময় ছেলে উজ্জল আহমদ মায়ের পক্ষালম্বন করতো।

মঙ্গলবার ভোরবেলা গ্রামের সুনু মিয়ার পরিত্যা’ক্ত বাড়ির লিচু গাছে ঝু’লন্ত অবস্থায় ফখরুল ইসলামের লা’শ পাওয়া যায়। নিহতের স্ত্রী, পর’কীয়া প্রে’মিকরা ও ছেলে আ’ত্মহত্যা’র প্র’চারণা চালায়। সকালে পুলিশ নিহতের ঝু’লন্ত লা’শ উদ্ধার করে।

এঘটনায় নিহতের বোন সুফিয়া বেগম বুধবার রাতে নিহ’তের স্ত্রী দিলারা বেগম, ছেলে উজ্জল আহমদ, পর’কিয়া প্রেমিক সেলিম উদ্দিন, মস্তাব উদ্দিন এবং রহমত আলীর নাম উল্লেখ ও আরো কয়েকজনকে আজ্ঞাত আসামী করে থানায় হ’ত্যা মামলা দায়ের করেন। নিহতের বোন সুফিয়া বেগম অভিযোগ করেন তার ভাইয়ের স্ত্রী পরপুরুষে আসক্ত। তিনি তার প’রকী’য়া প্রেমিকদের নিয়ে পরিকল্পিতভাবে তার ভাইকে শ্বা’সরুদ্ধ করে হ’ত্যার পর লেচু গাছে ঝু’লিয়ে রাখে।

বড়লেখা থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, ফখরুল ইসলাম হ’ত্যা মামলায় নিহতের স্ত্রী, ছেলেসহ ৫ আসামিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। আদালত ২ আসামীর রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

আরও পড়ুন