সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন

এবার পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ জানিয়েছেন, পুলিশ ও র‍্যাব সদস্যরা বেতনের জন্য না, দেশের টানে কাজ করেন। র‍্যাবের দুঃসাহসিক অভিযান ও সাফল্যের কারণে সুন্দরবন দস্যুমুক্ত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার ২৯ জুলাই কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবনী পয়েন্ট দীপংকর দীপন পরিচালিত ‌‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমার ট্রেলার উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় আইজিপি বলেন, র‍্যাব বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ স’ন্ত্রাস দমনে গঠিত একটি চৌকস বাহিনী। দেড় যুগ ধরে এই বাহিনী অত্যন্ত দক্ষতা ও সাহসিকতার সঙ্গে দেশের জ’ঙ্গি, চরমপন্থি, স’ন্ত্রাস, মাদক চোরা’চালান ও অপ’হরণসহ নানা অপরা’ধমূলক কর্মকাণ্ড সাফল্যের সঙ্গে নিয়ন্ত্রণ করে আসছে।

আমাদের ভুরি ভুরি সাফল্যের মধ্যে অন্যতম বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল সুন্দরবনকে দ’স্যুমুক্ত করা। র‍্যাবের সদস্যরা যে জীবন বাজি রেখে মানুষের পাশে থাকতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞা ছিল তাই প্রতীয়মান হয়েছে। আমাদের র‍্যাব সদস্যরা আসল হিরো। বেনজীর আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা সুন্দরবনকে দ’স্যুমুক্ত করেছি। সুন্দরবনে সুষ্ঠু ও শান্তির পরিবেশ ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

এদিকে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে র‌্যাবের ডিজি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বিশ্বের সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত করা র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের বড় একটি অর্জন। অপহরণ-হত্যার ঘটনা এখন আর শোনাই যায় না। জেলেদের কষ্টার্জিত উপার্জনের ভাগও এখন কাউকে দিতে হচ্ছে না। বন্যপ্রাণী, মাওয়ালি, বাওয়ালি ও বনজীবী ছাড়াও পর্যটকরা নির্বিঘ্নে সুন্দরবনে ভ্রমণ করতে পারছেন। অর্থনৈতিক গতিশীলতায় ব্যাপক প্রাণের সঞ্চার হয়েছে বনে। আর এসব সম্ভব হয়েছে সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত করার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী পরিকল্পনা থেকে।

অনুষ্ঠান চলাকালীন ‘অপারেশন সুন্দরবন’ নিয়ে কাজের অভিজ্ঞতা জানতে চাইলে সিনেমাটির অভিনেতা সিয়াম বলেন, প্রতিটি মুহূর্তেই অ্যাডভেঞ্চার ছিল। তীব্র শীতের মধ্যে সুন্দরবনে আট-দশ দিন টানা পানির ওপরে থেকে কাজ করতে হয়েছে। কাজের সময় নিজেকে র‍্যাবের একজন কর্মকর্তাই ভেবেছি। আমি লেফটেন্যান্ট কমান্ডার ছিলাম। র‍্যাবের সত্যিকার সদস্যরা সঙ্গে ছিলেন। মনে হচ্ছিল, তাদের বাস্তবেই লিড করছি।

এদিকে ‘র’ক্তের শেষ বি’ন্দু বা’জি’ গানটি প্রসঙ্গে রোশান বলেন, অসাধারণ একটা গান। ভীষণ পছন্দ হবে সবার। র‍্যাব কর্মকর্তাদের চিয়ার-আপ (অনুপ্রাণিত) করার মতো গান। জীবন বাজি রেখে র‍্যাব বাহিনীর বিভিন্ন কর্মকাণ্ড ও অর্জনের কথা এই গানটির মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে।

আরও পড়ুন