সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪০ পূর্বাহ্ন

আ’ত্মহ’ত্যার জন্য থানায় ঢুকে তুলকালাম ঘ’টালো চট্টগ্রামের কলেজ ছাত্র শাকিল হোসেন। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে অভিমানী তরুণের এমন কাণ্ডে শনিবার (৩০ জুলাই) রাতে সোরগোল পড়ে বন্দরনগরীর ইপিজেড থানায়। তার কান্না আর আ’ত্মহ’ত্যার হু’মকিতে নিরুপায় পুলিশ ডেকে আনে পরিবারকে। বুঝিয়ে শুনিয়ে তুলে দেয় তাদের হাতে।

শনিবার (৩০ জুলাই) রাতে বন্ধুকে সাথে করে কাঁদতে কাঁদতে চট্টগ্রামের ইপিজেড থানায় আসেন হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র শাকিল।

পুলিশের কাছে তিনি অভিযোগ জানান, প্রেমিকা তার সাথে প্র’তারণা করেছে। তাকে ফিরিয়ে না দিলে আ’ত্মহ’ত্যা করবেন বলে হু’মকি দেন ওই তরুণ। ফেসবুকে পরিচয়, তারপর আড়াই বছরের প্রেম, কিন্তু হঠাৎ সম্পর্ক ছিন্ন করার বিষয়টি মানতে নারাজ তিনি।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী বলেন, আমি স্লিপিং পিল খেয়েছি, ছাদ থেকেও লাফ দিয়ে আত্মহ’ত্যার চেষ্টা করেছি। আমার বন্ধুরা বারবার আমাকে রক্ষা করেছে। আমি মা’নসিকভাবে শেষ হয়ে গিয়েছি। আমি অনেক আশা নিয়ে পুলিশের কাছে এসেছি। আমি আশাবাদী তারা নিশ্চয় একটা উপায় করে দিবে আমাকে।

ছেলের এমন পা’গলা’মির খবর পেয়ে থানায় ছুটে আসেন বাবা আলী হোসেন। তিনি বলেন, আমরা তাকে অনেক বুঝিয়েছি। এই ধরনের কাজ খা’রাপ। সে বাড়িতে ভাত খায় না, সবসময় মন ম’রা হয়ে থাকে বলেও জানান বাবা।

পুলিশ বলছে, কখনও এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হননি তারা। ইপিজেড থানার অফিসার ইনচার্জ কবিরুল ইসলাম বলেন, এই বিষয়ে আসলে আমাদের করার কিছু নেই। ছেলে-মেয়ে দু’জনই প্রা’প্তবয়স্ক। সম্পর্ক রাখা না রাখার বিষয়ে পুলিশের কিছু করণীয় নেই। তারপরও ছেলে যদি চায় তাহলে আদালতে তার বিরু’দ্ধে মা’মলা করতে পারে। আমি তার অভিভাবককে ডেকে কাউন্সিলিং করার পরামর্শ দিয়েছি।

আরও পড়ুন