সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০১:১১ পূর্বাহ্ন

স্বামী-স্ত্রীর দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিনের। শনিবারও তাদের ঝগড়া হয়। রাগের বশে স্ত্রীকে তিন তালাক দেন স্বামী। এরপরই স্ত্রী অন্য ঘরে রাত কাটান। তবে সকালে উঠে স্বামীর ঝুল’ন্ত লা’শ পেলেন তিনি।

শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার ছৈলাআফলাবাদ ইউনিয়নের লাকেশ্বর গ্রামের পশ্চিমপাড়ায়। নিহতের নাম রশিদ আলী। ৩০ বছর বয়সী এ যুবক একই গ্রামের জাহির আলীর ছেলে। তিনি চার সন্তানের বাবা ও একজন রাজমিস্ত্রি ছিলেন।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই স্ত্রীর সঙ্গে বিরোধ চলছিল রশিদ আলীর। শনিবার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এ সময় ক্ষু’ব্ধ হয়ে স্ত্রী জেসমিন বেগমকে তিন তালাক দেন রশিদ। এরপর স্বামীর ঘর ছেড়ে অন্য ঘরে রাত কাটান জেসমিন। এ সুযোগে নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে রশি বেঁধে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহ’ত্যা করেন তিনি।

স্থানীয়রা জানায়, রোববার সকালে রশিদ আলীকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নেন শ্বশুর। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। পরে তার লা’শ বাড়িতে রেখে শ্বশুর ও শ্যালক উধাও হয়ে গেছেন।

ছাতক থা’নার ওসি শেখ নাজিম উদ্দিন বলেন, আত্মহ’ত্যার খবর পেয়ে রশিদ আলীর লা’শ উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া থা’নায় একটি অপমৃ’ত্যু মা’মলা হয়েছে।

আরও পড়ুন