রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৯:৩৩ পূর্বাহ্ন

হুগলির গোঘাটে একই পরিবারের দুই ছেলের গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহ’ত্যা। শনিবার রাতে গোঘাটের সামন্তখ’ণ্ড গ্রামে দুই ভাই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহ’ত্যা করে। দুই ছেলের আত্মহত্যার কারণ তাদের মা বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের। মায়ের অন্য ব্যক্তির সঙ্গে সম্পর্ক মেনে না নিতে পেরে অশান্তির জেরে আত্মহ’ত্যা বলে জানা গেছে। দুই ছেলের নাম কৃষ্ণ রুইদাস ও কৌশিক রুইদাস। দুজনই পেশায় ট্রাক ড্রাইভার।

দুই ভাইয়ের আত্মহত্যার খবর গ্রামবাসীদের কাছে পৌঁছতেই ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন তাঁরা। অভিযুক্ত মহিলাকে চুলের মুঠি ধরে ঘর থেকে বের করে করে লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকে। গ্রামবাসীদের অভিযোগ,অবৈধ সম্প’র্ককে বৈধতা দিতে দুই ছেলেক খু’ন করা হয়েছে। মা তার প্রেমিকের সাহায্য নিয়ে খু’ন করেছে বলে অভিযোগ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীরা এলাকায় ভিড় জমায়। সকলেই ক্ষুব্ধ হয়ে পড়ে।

গ্রামবাসীদের আরও অভিযোগ, প্রেমিকের যোগ সাজশে নিজেরই গর্ভের দুই সন্তানকে খু’ন করেছে তাদের মা। সন্তানরা যখন ছোট ছিল পরকী’য়ার জেরেই তাদের বাবাও গলায় দড়ি দেয়। এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হলে, গোঘাট থানার পু’লিশ পৌঁছে মৃ’ত দুই যুবকের দেহ উদ্ধার করে। দেহ ময়নাতদন্তের জন্য আরামবাগ মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়। এলাকার একজন বাসিন্দা রাজু দাস জানান,”বড় ভাইয়ের স্ত্রী ছেড়ে চলে গিয়েছিল দিন কয়েক আগে। গতকাল মদ্যপান করে আসার পর প্রথমে সে গলায় দড়ি দেয়। তার দেখাদেখি আরেক ভাইও গলায় দড়ি দেয়।”

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আরামবাগের এসডিপিও অভিষেক মণ্ডল জানান, মহিলাকে মা’রধর ঘটনায় আপাতত পুলিশ কোনো লিখিত অভিযোগ পড়েনি। কিন্তু ছেলের আত্মহ’ত্যা করার ব্যাপারে পু’লিশ তদন্ত করছে তদন্ত ও ময়নাতদন্তের ভিত্তিতে পু’লিশ যথাযথ আইনমাফিক ব্যবস্থা করবে।

আরও পড়ুন