রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৩৬ পূর্বাহ্ন

বিশেষ দিবসে প্রচারিত নাটকগুলো নিয়ে দর্শকদের মনে প্রত্যাশা থাকে একটু বেশি-ই।শেষ হয়েছে ঈদুল আজহা।অন্যান্যবারের মতো এবারও ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রচার হয়েছে কয়েক ডজন নাটক-টেলিছবি!

ঈদে প্রচারিত নাটকগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি নাটক এসেছে আলোচনায়।তবে বিশেষভাবে দর্শকদের মনে দাগ কেটেছে জিয়াউল ফারুক অপূর্ব-মেহজাবিন চৌধুরী অভিনীত ‘শনির দশা’ নাটকটি।দেশের সীমানা পেরিয়ে নাটকটি এখন ভারতের ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ের অবস্থান করছে।

নাটকটি দেশের দর্শকদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে শীর্ষে পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা লাখাে প্রবাসী বাংলাদেশীদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন তরুণ নির্মাতা মহিদুল মহিম পরিচালিত ‘শনির দশা’ নাটকটি।শুধু দেশ কিন্তু নয়,ইউটিউবে প্রকাশের দুইদিনের মাথায় বাংলাদেশের গণ্ডি পেরিয়ে ‘শনির দশা’ জায়গা করে নিয়েছে সর্ববৃহৎ ভারতীয় ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ে।

মুম্বাই, দিল্লি কিংবা পশ্চিম বঙ্গের এ ট্রেন্ডিং লিস্টের ১৮০ এর মধ্যে ‘শনির দশা’ অবস্থান করছে ট্রেন্ডিং ১৪০-এ।যা বাংলাদেশের টিভি নাটক ইন্ডাস্ট্রির নির্মাতাদের জন্য নতুন এক অনুপ্রেরণার। এরপর সেটি আসে ১৫৭-তে। এছাড়াও শুধু পশ্চিম বঙ্গের সেরা ১০ এর মধ্যে দ্বিতীয় দিনে এটি জায়গা করে নেয় ট্রেন্ডিং ৯-এ এবং এখন সেটি অবস্থান করছে সেরা ৭-এ।

২৩ জুলাই বিকেল ৪টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তিনদিন আগে আপলোড করা এ নাটকটি দেখেছেন প্রায় ১৬ লাখ দর্শক।

নাটকটির রচয়িতা-নির্মাতা মহিদুল মহিম।এমন সাফল্যে বেশ উচ্ছ্বসিত। তিনি প্রথমেই দর্শকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, বরাবরই দর্শকদের ভিন্ন কিছু দেওয়ার চেষ্টা করি। এই কাজটির প্লট একটু বেশ ব্যতিক্রম।শনির দশা নাটকটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আমাদের নাটকের দর্শক আছে। তারা আমাদের নাটক পছন্দ করেন। নাটকটি গোটা

ভারতবর্ষে ইউটিউব ট্রেন্ডিংয়ে জায়গা করে নিয়েছে, এটা যেমন আনন্দের।তেমনই অনুপ্রেরণাও।যেখানে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি, তেলেগু, তামিল, বাংলা কন্টেন্টের ছড়াছড়ি সেখানে তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ১৮০ এর মধ্যে ট্রেন্ডিংয়ে জায়গা পাওয়াটাও কিন্ত বড় ব্যাপার। বাংলা ভাষাভাষী সকলের জন্য অন্তর থেকে ভালোবাসা জানাই। বাংলা নাটকের জয় হোক সর্বত্র।

আরও পড়ুন