শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন

ব্রিটেনে এক মানসিক রোগী চাঞ্চল্যকর কাণ্ড ঘটিয়ে ফেলেছেন। আত্মহত্যার জন্য নিজের গোপনাঙ্গ কেটে ফেলেন তিনি। শেষে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। অবশেষে চিকিৎসকদের চেষ্টার ৬ সপ্তাহ পরে গোপনাঙ্গে ক্ষত সারে।

ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে এই নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। ৩৪ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি রান্নাঘর থেকে ছুরি এনে গোপনাঙ্গে আঘাত করে। পুলিশ এসে দেখতে পায় ওই ব্যক্তি অজ্ঞান হয়ে মেঝেতে পড়ে রয়েছে। তারপরেই তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। গোপনাঙ্গটি বরফে সংরক্ষিত করে রাখা হয়।

এই ব্যক্তি সিজোফ্রেনিয়া নামে একটি গুরুতর মানসিক রোগে ভুগছেন। তার শরীরের অনেক অংশে ক্ষতের চিহ্ন দেখা যায়। ইউনিভার্সিটি হসপিটাল বার্মিংহাম এনএইচএস ফাউন্ডেশন ট্রাস্টের মতে, অস্ত্রোপচার সফল হওয়ার জন্য, আঘাতের ১৫ ঘন্টার মধ্যে প্রাইভেট পার্ট পুনরায় লাগানো দরকার।

হাসপাতালে জটিল অস্ত্রোপচার করা হয়। প্রায় ২৩ ঘণ্টা ধরে চলে। চিকিৎসকদের কাছে বিষয়টি খুবই চ্যালেঞ্জের ছিল।

গোপনাঙ্গ পুনরায় লাগিয়ে প্রায় ২ সপ্তাহ ওই ব্যক্তিকে সাধারণ ওয়ার্ডে রাখা হয়। সেই সঙ্গে নিয়ম করে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হয় তাঁকে।

এরপরেই ওই ব্যক্তিকে মানসিক ওয়ার্ডে স্থানান্তরিত করা হয়। ধীরে ধীরে ওই ব্যক্তির ক্ষত সারতে শুরু করে। অঙ্গচ্ছেদের কয়েক ঘণ্টা পরও গোপনাঙ্গের সফল অস্ত্রোপচারের এটিই প্রথম বলে জানানো হয়।

এই অস্ত্রোপচারের পর, সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে রোগীর গোপনাঙ্গ প্রতিদিন অ্যান্টিসেপটিক্স দিয়ে পরিষ্কার করা হয়। আপাতত ওই রোগীকে দ্রুত সুস্থ করাই এখন লক্ষ্য চিকিৎসকদের।

আরও পড়ুন