মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৫২ পূর্বাহ্ন

ভোলা থেকে গোপালগঞ্জে এক ব্যবসায়ীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকী’য়া করতে এসে স্বামীর হাতে ধরা খেলেন পুঃলিশ সদস্য রিয়াজুল ইসলাম।

পরে ওই নারীর স্বামী বিষয়টি পু’লিশকে জানালে ঘটনাস্থল থেকে পু’লিশ সদস্য রিয়াজুল ইসলামকে উদ্ধার করে থা’না হেফাজতে নিয়ে যায় সদর থাঃ’না পু’লিশ।

আটক পু’লিশ সদস্য হলেন, রিয়াজুল ইসলাম। তিনি বর্তমানে ভোলা জেলায় নৌ-পু’লিশে কর্মরত আছেন। তার বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলা উল্লাপাড়ায়

এদিকে, এ ব্যাপারে আইনগত সহযোগিতার জন্য গোপালগঞ্জ পু’লিশ সুপার আয়েশা সিদ্দিকার কাছে লিখিত আবেদন করেন ভুক্তভোগী ওই ব্যবসায়ী।

ব্যবসায়ী রিয়াজ উদ্দিন বলেন, গোপালগঞ্জ জেলায় চাকরি করার সুবাদে পুলি’শ সদস্য রিয়াজুল ইসলাম আমার স্ত্রীর (রুমা আক্তার) সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলেন। বিষয়টি আমি জানতে পেরে উভয়কে বিভিন্নভাবে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ করি। কিন্তু আমার কথায় কর্ণপাত না করে তারা এই অবৈধ সম্পর্ক চালিয়ে যায়। আমার স্ত্রী সবসময় তাদের এ সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে আসছিলেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত এক বছর ধরে আমাদের সংসারে নানান অশান্তি লেগে আছে।

একপর্যায় আমার স্ত্রী আমাকে প্রলো’ভন দেখিয়ে পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া আমার একটি বাড়ির জমি তার নামে দানপত্র দলিল করিয়ে নেয়। এছাড়া আমাদের পৈত্রিক বাড়ি ছেড়ে একই মহল্লায় আলাদা বাসা ভাড়া নিতে আমাকে বাধ্য করে। স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্কের সত্যতা যাচাই ও হাতেনাতে ধরতে ব্যবসায়ীক কাজে আমার খুলনায় যাওয়ার কথা বলি।

গত ১৮ আগস্ট হতে জরুরি প্রয়োজনে আমার খুলনায় রাত্রিযাপন করতে হবে বলে আমার স্ত্রীকে জানিয়ে আমার এক বন্ধুর বাসায় লুকিয়ে থাকি।

এসময় আমাদের ভাড়া বাসা ফাকা পেয়ে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আমার স্ত্রী তার পর’কীয়া প্রেমিককে নিয়ে ওই বাসায় রাত্রিযাপন করেন। প্রতিবেশীরা বিষয়টি আমাকে জানানোর পর আমি বাসায় গিয়ে তাদেরকে হাতেনাতে ধরে ফেলি। এরপর গোপালগঞ্জ থা’নায় খবর দিলে পু’লিশ এসে ওই পু’লিশ সদস্যকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় এবং থা’না হেফাজতে রাখেন।

ব্যবসায়ীর স্ত্রী (রুমা আক্তার) সঙ্গে কথা বললে তিনি তার স্বামীকে একবছর আগে তালাক দিয়েছেন বলে জানান। কিন্তু এ সংক্রা’ন্ত কোন কাগজ দেখাতে পারেননি তিনি।

গোপালগঞ্জ থা’নার পু’লিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শীতল পাল বলেন, বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। পু’লিশ সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। – সময়নিউজ.টিভি

আরও পড়ুন