বৃহস্পতিবার, ০৭ Jul ২০২২, ০১:০০ অপরাহ্ন

বার তালেবান নেতা শাহবুদ্দিন দেলওয়ার বলেছেন, আমরা দেশকে মসৃণভাবে চালাতে পারি কি না; সেই সক্ষমতা সম্পর্কে শীঘ্রই জানতে পারবে ভারত। আফগানিস্তানে নতুন তালেবান সরকারের স্থায়ীত্ব নিয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সন্দেহের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেছেন।

সপ্তাহখানেক আগে মোদি বলেন, সন্ত্রাসী নির্ভর সাম্রাজ্য কিছু সময়ের জন্য প্রাধান্য বিস্তার করলেও তা কখনোয়ই স্থায়ী হবে না। গেল ২০ আগস্ট এক টুইটবার্তায় তিনি বলেন, ক্ষমতাকে ধ্বংস করে তারা দীর্ঘ সময়ের জন্য মানবতাকে দমিয়ে রাখতে পারবে না।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের জবাবে গতকাল বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) রেডিও পাকিস্তানের সঙ্গে আলাপকালে আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করতে ভারতকে হুঁশিয়ারি করে দেন শাহবুদ্দিন দেলওয়ার। তিনি বলেন, আফগানিস্তানের প্রতিবেশী ও বন্ধুত্বপূর্ণ দেশ পাকিস্তান। ত্রিশ লাখ আফগান শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ায় পাকিস্তানকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

এই তালেবান নেতা আরও বলেন, শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়ে মানবকল্যাণে ভূমিকা রাখায় পাকিস্তানের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধের ওপর ভিত্তি করে সব দেশের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপন করতে চায় তালেবান। এদিকে তালেবানকে নিয়ে নিজেদের অবস্থান এখনো নির্ধারণ করেনি রাশিয়া। এখন আফগান জনগণ ও রুশ কূটনীতিকদের ক্ষেত্রে তাদের আচরণ কেমন হয়, তাও বিবেচনা করে দেখা হবে।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) এমন দাবি করেছেন। তিনি বলেন, আফগানিস্তানে শান্তি ও স্থিতিশীলতায় মস্কো আগ্রহী। এছাড়া সেখানের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ওয়াশিংটনের সঙ্গে রাশিয়া আলোচনা চালিয়ে যাবে। এছাড়া সামাজিকমাধ্যমে নিজেদের বিশেষ বাহিনীকে তুলে ধরেছেন তালেবান যোদ্ধারা। নতুন উর্দিতে বিশেষ বাহিনীর সদস্যদের হাতে জব্দ করা আমেরিকান অস্ত্র দেখা গেছে। প্রচারের উদ্দেশ্যে ‘বাদরি ৩১৩’ নামের এই সামরিক ইউনিটের ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে।

এদিকে তালেবান কীভাবে নিজেদের সামর্থ্যের ভিতর থেকে যোদ্ধাদের সজ্জিত ও প্রশিক্ষিত করে, সামাজিকমাধ্যমের পোস্টে তা-ই দেখানো হয়েছে। সামাজিকমাধ্যমে পোস্ট করা ছবিতে সেনাদের পরনে ছিল উর্দি, বুট ও বালাক্লাভা। বিশ্বজুড়ে বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা যে ধরনের পোশাক পরেন, তাদেরও সেভাবে দেখা গেছে।

আরও পড়ুন