বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৭:২৭ অপরাহ্ন

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে স্ত্রীর সঙ্গে ক’লহের জেরে গলায় ফাঁ’স দিয়ে আ’ত্মহ’ত্যা করেছেন শরীফুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুবক। বৃহস্পতিবার বিকেলে যাত্রাবাড়ীর কুতুবখালী এলাকায় নিজের ঘরে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁ’স দেন তিনি।

অচেতন অবস্থায় শরীফুলকে উ’দ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিকেল ৫টার দিকে তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন। শরীফুল ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা থা’নার মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

তিনি দুই বোন এক ভাইয়ের মধ্যে দ্বিতীয়। মতিঝিলে একটি বাসের কাউন্টারে চাকরি করা শরীফুল স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস ও তিন বছরের এক কন্যা সন্তানকে নিয়ে কুতুবখালীর ওই চারতলার বাসায় থাকতেন। শরীফুলের স্ত্রী বলেন, বুধবার আমার সঙ্গে পারিবারিক বিষয় নিয়ে তার ঝগড়া হয়।

আমি তাকে রাগ করে বলেছিলাম তোমাকে ডিভোর্স দিয়ে দেবো। এ বিষয় নিয়ে মান’সিকভাবে সে ভেঙ্গে পড়ে। বিকেলে বাসায় গ্যাস না থাকায় কাছেই আমার মায়ের বাসায় রান্নার করার জন্য চলে যাই। এরপর বাসায় এসে দরজা বন্ধ দেখি। অনেক ডাকাডাকি করার পরও দরজা না খুললে তা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে দেখি,

সে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁ’স দিয়ে ঝুলে আছে। অচেতন অবস্থায় তাকে উ’দ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন। আমি আর কোন দিন ঝগড়া করব না। আমার স্বামীকে ফিরিয়ে দাও আল্লাহ।

তাদের তিন বছরের একটি মেয়েশিশু আছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমি এখন কি নিয়ে বাঁচব। আমার মেয়ে তো বাবা ছাড়া কিছুই বোঝে না। ম’রদেহটি হাসপাতালের জরুরী বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন