বৃহস্পতিবার, ০৭ Jul ২০২২, ১২:৫১ অপরাহ্ন

প্রতিবেশীর ধ’র্ষণে অ’ন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী (১৩)। ধারাবাহিকভাবে ওই ছাত্রী প্রতিবেশীর লালসার শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বর্তমানে ওই কিশোরী ৭ মাসের অ’ন্তঃসত্ত্বা। ঘটনা জানাজানি হলে ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে ১ সেপ্টেম্বর থা’নায় মা’মলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসী ঘটনায় জড়িত ব্যক্তির দৃ’ষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছেন।

পু’লিশ সূত্রে জানা যায়, করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী বাড়িতেই অবস্থান করছিলো। তার পিতা-মাতা দু’জনই কাজে চলে যাওয়ায় দিনের বেলায় বাড়িতে সে একাই থাকতো। এ সুযোগে প্রতিবেশী মো. শাহিন (৫০) ফাঁকা বাড়িতে আসা-যাওয়া শুরু করে এবং বিভিন্ন সময় ওই ছাত্রীর ওপর যৌ’ন নির্যাতন চালায়।

পরিবারের সদস্যরা জানান, চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে এ ধ’র্ষণ চলতে থাকে। মেয়েটি সম্প্রতি অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তার বাবা-মা মেয়েকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর কিশোরীর অ’ন্তঃস’ত্ত্বা হয়ে পড়ার বিষয়টি জানা যায়। পরে মেয়ের কাছে প্রকৃত ঘটনা জানতে পারেন পিতা-মাতা। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে দিঘলিয়া থা’নায় মা’মলা দায়ের করেছেন। মা’মলায় মো. শাহিনকে আসা’মি করা হয়েছে।

দিঘলিয়া থা’নার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) রিপন কুমার সরকার বলেন, পু’লিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং বাদীর অভিযোগটি দ্রুত নথিভুক্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন