সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১২:৫২ পূর্বাহ্ন

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে চলন্ত ট্রেনে দুর্বৃত্তদের পাথর নিক্ষেপে ট্রেনের চালক কাউসার আহমেদ গুরুতর আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে কিশোরগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আন্তনগর কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনটি ভৈরব পৌর শহরের লক্ষ্মীপুর এলাকা অতিক্রম করার সময় কে বা কারা চলন্ত ট্রেনে আচমকা পাথর নিক্ষেপ শুরু করে। এ সময় পাথরের আঘাতে ইঞ্জিন কামরার জানালার কাচ ভেঙে সহকারী ট্রেনচালক কাউসার আহমেদের দুই চোখেই কাচ বিদ্ধ হয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন।

এ ছাড়া এ সময় বেশ কয়েকটি যাত্রীবাহী কামরায় দুর্বৃত্তদের ছোড়া পাথর আঘাত হানে বলেও জানা যায়। ঘটনার কয়েক মিনিটের মাথায় ট্রেনটি ভৈরব স্টেশনে যাত্রাবিরতি দিলে আহত সহকারী ট্রেন চালক কাউসার আহমেদকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ওই ট্রেনে করেই উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। বর্তমানে তিনি ঢাকার একটি চক্ষু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এদিকে খবর পেয়ে রাত ১১টা পর্যন্ত ঘটনাস্থল থেকে জড়িত সন্দেহে ১৫ জনকে আটক করে ভৈরব রেলওয়ে থানা পুলিশ। তবে আটককৃত কেউই পাথর নিক্ষেপের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেননি। আজ শুক্রবার সকালে মুচলেকা রেখে আটককৃতদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে ভৈরব রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আহমেদ বিশ্বাস কালের কণ্ঠকে জানান, চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের নির্দিষ্ট কারণ জানা যায়নি। কারণ খুঁজতে ১৫ জনকে আটক করা হয়েছিল। তবে তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন। পরে মুচলেকা রেখে তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় শুক্রবার দুপুর ১টা পর্যন্ত মামলা হয়নি। তবে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানিয়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন