বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৯:১৯ পূর্বাহ্ন

তিনি বিয়ে করে সংসার করতেন বড়জোর ১০ থেকে ১৫ দিন। তারপর সুযোগ বুঝে অর্থকড়ি নিয়ে সোজা উধাও হয়ে যেতেন স্ত্রী। এরপর কিছুদিনের বিরতি। আবার অন্য পুরুষ, অন্য বিয়ে, নতুন সংসার। এভাবে গত চার বছরে আটজন স্বামীর ঘর করেছেন ভারতের এক নারী। প্রতারণার দায়ে স্থানীয় পু’লিশের হাতে সম্প্রতি গ্রে’ফতার হয়েছেন তিনি। এরপর শারীরিক পরীক্ষায় ধরা পড়েছে, ওই নারী এইচআইভি/এইডসে আক্রা’ন্ত। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতে।

তবে ঠিক কতদিন ধরে তিনি এ রোগ বয়ে বেড়াচ্ছেন, তা নিশ্চিত নয়। এ কারণে পু’লিশ ওই নারীর সাবেক স্বামীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। সুস্থতা নিশ্চিত করতে তাদেরও মেডিক্যাল পরীক্ষা করাতে বলা হয়েছে।

এদিকে বিয়ের আড়ালে এমন প্রতারণার ঘটনা অবশ্য ভারতে নতুন নয়। তবে প্রতারক কনের মাধ্যমে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি প্রতারিতদের এইডসে আক্রান্ত হওয়ার আশ’ঙ্কার খবর শোনা গেলো এবারই প্রথম।

ভারতীয় পু’লিশ জানিয়েছে, ওই নারীর বাড়ি পাঞ্জাবে। বয়স ৩০। তিনি দুই সন্তানের মা। বিয়ে করে প্রতারণার ব্যবসা করছেন চার বছর ধরে। এ কাজে তার আরও তিন সহযোগী ছিলেন। পু’লিশ তাদেরও গ্রে’ফতার করেছে। পুলিশের কাছে অপরাধ স্বীকার করেছেন অভিযুক্তরা।

কীভাবে বিয়ের মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে বেরিয়ে আসতেন তা পু’লিশকে জানিয়েছেন ওই নারী। তিনি বলেছেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রে পণের মামলার হুমকিতেই কাজ হয়ে যেতো। তবে তাতে সুবিধা না হলে শ্বশুরবাড়ির লোকদের অচেতন করে অর্থ-স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়ে যেতেন।

এদিকে পু’লিশ জানিয়েছে, চার বছর আগে ওই নারীর স্বামী তাকে ছেড়ে চলে যান। এরপর থেকেই বিয়ে করে প্র’তারণার ব্যবসা ফেঁদে বসেন তিনি।

আরও পড়ুন