বৃহস্পতিবার, ০৭ Jul ২০২২, ০২:২৭ অপরাহ্ন

এমবিবিএস চিকিৎসক আরিফুর রহমান। তিনি বিয়ে করতে পছন্দ করেন। পেশায় চিকিৎসক হলেও বিয়ে করাটা তার নেশায় পরিণত হয়েছে। তাই অবিবাহিত পরিচয় দিয়ে করেছেন তিনটি বিয়ে।

এবার এক কিশোরীকে বিয়ে করতে গিয়ে আ’ইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে ধরা পড়েছেন আরিফুর।
শুক্রবার রাতে ঢাকার দোহার উপজেলার সুতারপাড়া ইউনিয়নের ঘাড়মোড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আটক আরিফুর বরিশাল সদর উপজেলার মো. সিয়ামের ছেলে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন দোহার থা’নার ওসি (তদন্ত) মাসুদুর রহমান। তিনি জানান, শুক্রবার রাতে ঘারমোড়া এলাকায় একটি বাল্যবিবাহের সংবাদ পেয়ে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে ঘটনাস্থল থেকে চিকিৎসক বর আরিফুর রহমানকে আ’টক করে পুলি’শ।

ঘটনাস্থলেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আরিফুরকে ছয়মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এ এফ এম ফিরোজ মাহমুদ। এসময় কনের পিতাকেও ১০ হাজার টাকা অর্থদ’ণ্ড প্রদান করা হয়।

আরিফুর রহমানকে আট’কের পর জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে পুলি’শ জানায়, পেশায় চিকিৎসক আরিফুর ২০০৬ সালে ঢাকার স্যার সলিমুল্লাহ মিটর্ফোড মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এমবিবিএস পাস করেন।

ওই চিকিৎসকের আরো তিনি বিয়ে করেছেন। এরমধ্যে বরিশালে দুটি ও দোহারে একটি বিয়ে করেছেন। তবে এক বিয়ের কথা আরেক স্ত্রীকে জানাননি তিনি। তার দেওয়া ঠিকানা অনুযায়ী খোঁজ নিয়ে বিয়ের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। আটকের খবর পেয়ে শনিবার দুপুরে দোহার থা’নায় আসেন আরিফুরের বরিশালের এক স্ত্রীর ভাই।

শনিবার দুপুরে সা’জাপ্রাপ্ত চিকিৎস আরিফুরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয় বলে জানায় পুলি’শ।

আরও পড়ুন