বুধবার, ২৯ Jun ২০২২, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন

দক্ষিণ এশিয়ার সর্ব বৃহৎ মালয়েশিয়াস্থ গ্লাভস শিল্পের চাহিদা মেটাতে জরুরি ভিত্তিতে বিদেশি কর্মী নিয়োগে সরকারের কাছে আবেদন করেছে, দেশটির রাবার গ্লাভস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (মার্গমা)।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সরকারের কাছে মার্গমা এ আবেদন করে। গ্লাভস কোম্পানিতে কর্মী সংকটের কারণে উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। আবেদনে উল্লেখ করা হয়, ২০১৯ সাল থেকে এ খাতে ২৫ হাজার শ্রমিক সংকট রয়েছে। আগামী বছর ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে শ্রমিক সংকট নিরসনে বিদেশি কর্মী প্রবেশ ও নিয়োগে সরকারের কাছে অনুমতি চেয়েছে রাবার গ্লাভস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন।

এ দিকে অতিরিক্ত কর্মীদের জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজন এবং নিয়োগ প্রক্রিয়ার শর্তাবলী এবং প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য সংস্থাগুলি প্রস্তুত রয়েছে বলে মার্গমার প্রেসিডেন্ট সুপ্রামানিয়াম শানমুগাম এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন ।

তিনি বলেন, “আমাদের উৎপাদন ক্ষমতা আছে, কিন্তু উৎপাদন ক্ষমতাকে সর্বোত্তমভাবে কাজে লাগানোর জন্য পর্যাপ্ত কর্মী নেই।”

বুধবার রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মালয়েশিয়ার উৎপাদন, পাম অয়েল খাত, প্রবাসী শ্রমিকদের উপর অনেক বেশি নির্ভর করে। মহামারী শুরুর পর থেকে বিদেশি কর্মীরা মালয়েশিয়ায় প্রবেশ করতে পারেনি। তাছাড়া অনেকেই কাজ হারিয়ে নিজ দেশে খালি হাতে ফেরত যাচ্ছেন।

এ ক্ষেত্রে পাম অয়েল কোম্পানিগুলো গত বছর থেকে বিদেশি শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনতে সরকারকে অনুরোধ করে আসছিল।

এ দিকে সরকার উদ্ভিদ খাতে ৩২,০০০ বিদেশী কর্মী নিয়োগে সম্প্রতি বিশেষ অনুমোদন ঘোষণা করেছে।

মার্গমা বলছে, মালয়েশিয়ার রাবার গ্লাভস উৎপাদকরা চীন থেকে “তীব্র প্রতিযোগিতার” মুখোমুখি হচ্ছেন, তাই তাদের অর্ডারগুলি পূরণ করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে।

মালয়েশিয়া বিশ্বের রাবার গ্লাাভস ব্যবহারের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ সরবরাহ করে।

অটোমেশনের কারণে, শিল্পটি ২০১৩ সাল থেকে প্রায় ,৭২,০০০ কর্মীর কর্মক্ষমতা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে, তখন থেকে উৎপাদিত এবং রপ্তানি করা গ্লাভসের পরিমাণ প্রতি বছর ১০-১৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

আরও পড়ুন