সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন

গাজীপুর সদর উপজেলায় একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমডি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সহকারী শিক্ষিকাকে জোরপূর্বক ধ’র্ষণ করে তার ভিডিও ধারণের অভিযোগ উঠেছে। পরে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে একাধিকবার ধ”র্ষণ করেন অভিযুক্ত সাদেকুল ইসলাম সেলিম।

এ ঘটনায় ১ অক্টোবর ধর্ষ’ণের শিকার শিক্ষিকা জয়দেবপুর থানায় একটি ধ’র্ষণ মা’মলা করেন। ঐ মামলার একমাত্র আসামি সাদেকুল ইসলাম সেলিম ময়মনসিংহের ভালুকা থানার ডাকাতিয়া গ্রামের শামছুল হকের ছেলে। তিনি গাজীপুর সদরের ভাওয়াল মির্জাপুর ইউনিয়নের সৃজনশীল স্কুল অ্যান্ড কলেজের এমডি ও প্রধান শিক্ষক।

মা’মলা সূত্রে জানা গেছে, ধ’র্ষণের শিকার শিক্ষিকা ৬ মাস ধরে ওই স্কুল অ্যান্ড কলেজে কর্মরত। প্রধান শিক্ষক সেলিমের অফিস এবং ঐ শিক্ষিকার ডেস্ক একই রুমে হওয়ায় প্রায়ই তাকে উত্ত্যক্ত করতেন এবং কুপ্রস্তাব দিতেন সেলিম। এতে রাজি না হওয়ায় গত ২৭ জুন বিকেলে শিক্ষকরা স্কুল থেকে চলে যাওয়ার পর অফিস রুমের দরজা বন্ধ করে ঐ শিক্ষিকাকে ধ’র্ষণ ও গো’পনে ভিডিও ধারণ করেন। পরবর্তীতে ধর্ষ’ণের ভিডিও ইটারনেটে ভাইরাল করে দেওয়ার ভ’য় দেখিয়ে তাকে একাধিকবার ধ’র্ষণ করেন।

জয়দেবপুর থা’নার ওসি মাহাতাব উদ্দিন জানান, ধ’র্ষণের শিকার শিক্ষিকা মামলা করেছেন। আসা’মি বর্তমানে পলাত’ক। তাকে ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন