সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

বাবু-মনির সংসার প্রায় ১৫ বছরের। তাদের দুই ছেলেও রয়েছে। তবে স্ত্রীর প্রতি তেমন ভালোবাসা ছিল না বাবুর। আকর্ষণ ছিল অন্য পুরুষের প্রতি। তাদের সঙ্গে কাটাতেন একান্ত সময়। স্বামীর সমকামিতার কথা জেনে যাওয়ায় স্ত্রীর ওপর নেমে আসে অত্যাচার।

পুরুষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সময় কাটাতে না দেওয়ায় শেষমেশ স্ত্রীকেই মেরে ফেললেন ‘সমকামী’ বাবু।

ঘটনাটি বগুড়ার সারিয়াকান্দির। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার হাসনাপাড়া তিন মাথার মোড় এলাকা থেকে ৩৩ বছর বয়সী আঞ্জুয়ারা মনির লাশ উদ্ধার করে পুলি’শ। তবে ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত বাবু আকন্দ।

জানা গেছে, প্রায় ১৫ বছর আগে মনিকে বিয়ে করেন বাবু। তাদের দুই ছেলে রয়েছে। এর মধ্যে একজন এসএসসি পরীক্ষার্থী, অন্যজন দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। তবে বাবু কিছুটা মেয়েলি স্বভাবের। তিনি সমকামিতায় জড়াতেন। বিষয়টি নিয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্ব লেগেই থাকতো। বাবু অন্য পুরুষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সময় কাটাতেন।

এরই জেরে শুক্রবার বিকেলে নিজ বাড়িতেই স্ত্রীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে লাঠিসোটা নিয়ে স্ত্রীকে মা’রধর করেন বাবু। পরে গুরুতর অবস্থায় মনিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান।

সারিয়াকান্দি থা’নার এসআই কাজী মো. নজরুল ইসলাম বলেন, লা’শ উদ্ধার করে বগুড়া শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় থা’নায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন