বৃহস্পতিবার, ০৭ Jul ২০২২, ০১:৩৬ অপরাহ্ন

পরীমণি, ঢালিউডের এই নায়িকাকে নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। সাম্প্রতিক সময়ে ঢাকার বোট ক্লাব কাণ্ড থেকে শুরু করে তার বাড়ি থেকে মাদক উদ্ধার ও মাদক কাণ্ডে জেল হেফাজত ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠেছিল শোবিজ অঙ্গন।

জামিন পেয়ে জেলের বাইরে আসার পরও ছিলেন আলোচনায়। ওই সময় তিনি জানিয়ে দেন, তাকে দমিয়ে রাখা সহজ নয়। খুব তাড়াতাড়িই পুরনো ছন্দে ফিরে আসবেন তিনি। যেমন কথা, তেমন কাজ। পুরানো চরিত্রেই ফিরে আসলেন পরীমণি। শুরু করেছেন সিনেমার শুটিং। রবিবার ছিল তার ২৯তম জন্মদিন।

ছোটবেলাতেই নিজের বাবা-মাকে হারিয়েছেন পরীমণি। তাকে বড় করেছেন তার নানা। সিনেমাজগতে তার কোনও পূর্ববর্তী যোগাযোগ না থাকায় নিজের প্রতিভা আর সৌন্দর্যের জোরেই খুব তাড়তাড়ি দর্শকের মনে জায়গা করে নেন তিনি। ঢালিউডে সাহসী নায়িকা হিসাবেই পরিচিত পরীমণি।

প্রতিবছরই নিজের জন্মদিন ধূমধাম করে সেলিব্রেট করেন নায়িকা। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। রবিবার ঢাকা শহরের এক পাঁচতারা হোটেলে বসে পরীমণির জন্মদিনের আসর। তবে জন্মদিনের সকালটা একটি অনাথ আশ্রমে কাটালেন নায়িকা। কেক কেটে সেলিব্রেট করলেন জন্মদিন। এছাড়াও ওই আশ্রমের শিশুদের জন্য বিশেষ উপহারও নিয়ে গিয়েছিলেন পরীমণি।

নিজের কাছের মানুষদের নিয়েই এবছর জন্মদিন সেলিব্রেট করেন তিনি। প্রতিবছর পরীর জন্মদিন পার্টিতে ড্রেস কোড জানিয়ে দেওয়া হয়। এবারও তার ব্যতিক্রম ছিল না। এবার কালার ছিল সাদা ও লাল। জন্মদিনের কার্ডে নায়িকা লিখেছেন, ‘তোমার খাঁটি হৃদয় নিয়ে আমার কাছে এসো এবং আমার সঙ্গে উড়ে বেড়াও চিরদিনের জন্য’।

লাল শক্তির রঙ ও সাদা শান্তির রঙ; শক্তি ও শান্তি নিয়ে যাঁরা তার জীবনে আসেন তাদের নিয়েই জন্মদিন সেলিব্রেট করেছে নায়িকা। তাই এই দুটি রঙকেই বেছে নেন নায়িকা।

জন্মদিনে পরীমণি বলেন, ‘জন্মদিন সবার জীবনে বিশেষ একটি দিন। এই দিনটি সবসময় চেষ্টা করি একটু আলাদাভাবে পালন করতে। অনেকেই হয়তো ভেবেছিলেন এবার জন্মদিন পালন করব না। তবে, বিশেষ দিনটি কাছের মানুষদের সঙ্গে নিয়ে উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেই।

যার জন্য শুটিং থেকে একদিনের ছুটি নিয়ে ঢাকায় ফিরেছি। জন্মদিনের প্রথম প্রহর শুরু হয় কাছের মানুষদের নিয়ে কেক কেটে। জন্মদিনে একটাই চাওয়া- সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।’
সূত্র : জি২৪

আরও পড়ুন