শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ০৪:১৩ পূর্বাহ্ন

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় পদ্মা নদীতে ৩০টি যানবাহন নিয়ে শাহ আমানত ফেরি কাত হয়ে পড়ার কারণ জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

বুধবার ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ চালানোর সময় এ তথ্য জানান জেলা ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক শরিফুল ইসলাম।

তিনি জানান, উদ্ধার তৎপরতা চালাতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা শাহ আমানত ফেরির তলদেশে একটি ছিদ্র খুঁজে পেয়েছেন। ঐ ছিদ্র দিয়ে পানি উঠে ফেরির ডানপাশ ভারি করে ফেলেছিল। এছাড়া নদীতে স্রোত থাকায় ফেরিটি নিয়ন্ত্রিত গতিতে পাড়ে ভিড়তে পারেনি। গতি তুলনামূলক বেশি থাকায় পন্টুনের সঙ্গে বেশ জোরে ধাক্কা লাগে। এতে পন্টুনের পাল্টা ধাক্কায় ডানদিকে কাত হয়ে পড়ে ফেরিটি।

ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক শরিফুল ইসলাম জানান, উদ্ধার তৎপরতা চলছে তবে এখনো কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে নৌবাহিনীর জাহাজ হামজা।

এদিকে বিআইডব্লিউটিএ সূত্রে জানা গেছে, পদ্মা নদীতে কাত হয়ে পড়া ফেরি শাহ আমানতে ১৩টি ট্রাক, ৪-৫টি ছোড় গাড়ি ও ৮-১০টি মোটরসাইকেল ছিল।

এর মধ্যে ৩-৪টি ট্রাক পন্টুনে নেমে যাওয়ার পরই ডানদিকে কাত হয়ে পড়ে ফেরিটি।

আরও পড়ুন