বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ১০:০৬ অপরাহ্ন

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের করা আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি শীঘ্রই পাকিস্তান ভ্রমণ করবেন বলে সম্মত হওয়ার পাশাপাশি ইমরান খানকেও বাংলাদেশে সফর করতে রাষ্ট্রীয়ভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। পাকিস্তানের গণমাধ্যম ডন-এর এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) বাংলাদেশে নিযুক্ত পাকিস্তানি হাইকমিশনার ইমরান আহমেদ সিদ্দিকী প্রধানমন্ত্রীর সাথে ঢাকায় বৈঠককালে তিনি এ কথা বলেন।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে উভয় দেশে নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নে সম্মত হয়েছেন। বিগত ১১ মাসের মধ্যে শেখ হাসিনা ও সিদ্দিকীর মধ্যে এটি ছিল দ্বিতীয় বৈঠক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার পাকিস্তানের সাথে শক্তিশালী বাণিজ্য সম্পর্ক এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতার জন্য তার সরকারের আকাঙ্ক্ষা পুনর্ব্যক্ত করেছেন।

ডন-এর খবরে বলা হয়, যে এই বৈঠকটি এমন একটি সময়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে যে, যখন উভয় দেশই শেখ হাসিনার প্রথম পাকিস্তান সফরের প্রস্তুতি শুরু করেছে। শেখ হাসিনা সম্প্রতি পাকিস্তানকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন, তিনি ইমরান খানের আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। তবে ভ্রমণের জন্য কোনো দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়নি। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বাংলাদেশ সফরের জন্য ইমরান খানকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

পাকিস্তানের পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে সফরের রোডম্যাপ তৈরী করতে একটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, যাতে আসন্ন সফর ফলপ্রসু হয়।

এদিকে, ইসলামাবাদও চাইছে উভয়পক্ষের ১৩ বছর ধরে স্থিমিত হয়ে থাকা কূটনৈতিক সম্পর্ক উন্নয়ন করতে। ২০০৯ সালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতা লাভের পর ১৯৭১ সালের যুদ্ধাপরাধীদের থেমে থাকা বিচার আবারও শুরু করেন শেখ হাসিনা।

যুদ্ধবন্দীদের প্রত্যাবাসনের জন্য ১৯৭৪ সালের এপ্রিলে ত্রিপক্ষীয় চুক্তির পর থেকে বাংলাদেশের সাথে পাকিস্তানের সম্পর্ক তেমন ভালো যাচ্ছিল না। তবে গত বছর থেকে সম্পর্কে আবারও উন্নতি হতে শুরু করে। সম্প্রতি ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন প্রণয়নের পর দিল্লির সাথে ঢাকার সম্পর্ক উত্তপ্ত হওয়ার পর পাকিস্তানের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্কের উন্নতি হতে শুরু করে। তাছারা চীনের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্কে উন্নয়নও পাকিস্তান বাংলাদেশের-সম্পর্কে প্রভাব ফেলেছে।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, হাই কমিশনার ইমরান সিদ্দিকী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশের জনগণকে ইমরান খানের শুভেচ্ছা ও বন্ধুত্বের বার্তা পৌঁছে দিয়েছেন। তখন ওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে ১৯৭৪ সালে প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পাকিস্তান সফরের একটি ফটো অ্যালবামও উপস্থাপন করেন; শীর্ষ সম্মেলনের সময় পাকিস্তানে তার ব্যস্ততার ভিডিও; লাহোর জাদুঘরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতির একটি ছবি, সেইসাথে পাকিস্তানি শিল্পীদের দ্বারা আঁকা ক্যালিগ্রাফি-শিল্প সম্বলিত একটি কফি টেবিল বই “আল্লামা বিল কালাম” এর বাংলা সংস্করণ।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপহার প্রেরণের জন্য হাইকমিশনার ও ইমরান খানকে শুভেচ্ছা বার্তা প্রেরণ করেন। সূত্র-ডন।

আরও পড়ুন