সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন

প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় বিয়েতে খাবার টেবিলে তৃতীয়বার অতিরিক্ত মাংস না দেয়াকে কেন্দ্র করে বর ও কনেপক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘ’র্ষ হয়েছে। এতে কনের বাবা-মা ও বরসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুর দেড়টায় উপজেলার মৌলভীর দোকান এলাকার নিরিবিলি কমিউনিটি সেন্টারে এ সংঘ’র্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে যাদের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন, কনের বাবা জসিম উদ্দিন ফারুক (৪৮), কনের মা রাশেদা বেগম (৩৫), মামা বাবুল (৩০), বর মোহাম্মদ শাহজাহান (২৮), মানিক (২৮), মো. রফিক (৩০) ও হুমায়ূন (২০)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুরে নিরিবিলি কমিউনিটি সেন্টারে উপজেলার ছদাহা পূর্ব কাজীর পাড়া (খামারপাড়া) কালা মিয়ার ছেলে মোহাম্মদ শাহজাহানের সাথে নোয়াখালীর সুবর্ণচর চরওয়াবদা ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা (বর্তমানে চট্টগ্রামের চন্দনাইশের হাছনদন্ডী) জসিম উদ্দিন ফারুকের মেয়ে মুক্তা বেগমের বিয়ের খাবার দাবারের আয়োজন চলছিল। এ সময় খাবার টেবিলে বরপক্ষের এক ব্যক্তিকে তৃতীয়বার অতিরিক্ত গরুর মাংস এনে না দেয়ায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মা’রামারি শুরু করে।

ছদাহা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোসাদ হোসাইন চৌধুরী বরপক্ষের বরাত দিয়ে জানান, বিয়েতে মারামারির ঘটনা মাংস নিয়ে নয়। এটা নাকি বিয়ে বানচালের জন্য তৃতীয় কোনো পক্ষের ষড়যন্ত্র।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সাতকানিয়া থা’নার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, বিয়েতে মাংস কম দেয়ার ব্যাপারে সংঘটিত অপ্রীতিকর ঘটনা জানার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ ব্যাপারে এখনো পর্যন্ত কেউ থা’নায় অভযোগ দেয়নি।

আরও পড়ুন