বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ১১:৩২ অপরাহ্ন

জ্বালানী তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় সারা দেশে গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। মানুষের চলাচলের জন্য ট্রেনই এখন ভরসা।

তবে বিনা টিকিটে ট্রেন ভ্রমণের দায়ে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের আওতায় ১৪টি আন্তঃনগর ট্রেনে অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ১০৪ যাত্রীর থেকে ভাড়াসহ জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের বাণিজ্যিক দফতরের ভ্রাম্যমাণ আদালত বিনা টিকিটের যাত্রীদের কাছ থেকে ৫ লাখ ৭২ হাজার ২৫০ টাকা রাজস্ব আয় করেছে।

গতকাল শনিবার (৬ নভেম্বর) সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পাকশি বিভাগীয় রেলওয়ের খুলনা, রাজবাড়ি, ঈশ্বরদী জংশন, বঙ্গবন্ধুসেতু (পশ্চিম) পার্বতীপুর স্টেশনে বিভিন্ন রুটের আন্তঃনগর ট্রেনে ব্লক চেকিং করা হয়।

আন্তঃনগর ট্রেনগুলো হলো- কপোতাক্ষ, চিত্রা রুপসা (আপ) মধুমতি, টুঙ্গিপাড়া, সিল্কসিটি, একতা, রংপুর, বনলতা, ঢালারচর, নীলসাগর (আপ) বরেন্দ্র এক্সপ্রেস নীলসাগর (ডাউন) রুপসা (ডাউন) পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে পাকশি বিভাগীয় রেলওয়ের বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পাকশি বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিনের নেতৃত্বে যাত্রীদের থেকে ভাড়াসহ জরিমানা ভাড়া আদায় করেন ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক আব্দুল আলিম বিশ্বাস মিঠু, ইয়াসির আরাফাত, বরকতউল্লাহ আল-আমিন, মার্টিন জয় মণ্ডল, মনোয়ারুল ইসলাম,এনায়েত হোসেন, মনিরুল ইসলাম, অরুপ জ্যোতি মণ্ডল, এনামুল হক, মকলেছুর রহমান, সঞ্জিত চন্দ্র রায়, আশিকুর রহমান, আমিরুল হক জাহেদী বেলাল হোসেন।

নাসির উদ্দিন জানান, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ফলে গণপরিবহন বন্ধের কারণে ঢাকার বাহিরে যাতায়াতের ভরসা ছিল ট্রেন। পাকশি বিভাগীয় রেলওয়ের আওতাধীন ১৪ টি ট্রেনে ছিল উপচে পড়া ভিড়। সকালের থেকে রাত পর্যন্ত অভিযান চালানো হয়।

এতে ২ হাজার ১০৪ যাত্রীর থেকে ভাড়াবাবদ ৪ লাখ ৫ হাজার ৬৭০ টাকা, জরিমানাবাবদ ১ লাখ ৬৬ হাজার ৫৮০ টাকা আদায় করা হয়েছে। এতে সর্বমোট ৫ লাখ ৭২ হাজার ২৫০ টাকা রাজস্ব আয় হয়েছে।

অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান ওই রেলওয়ে কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন