শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ০২:০২ পূর্বাহ্ন

২০১৪ সালে রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণের পর ওই বছরের ৩১ অক্টোবর বিয়ে করেন সাবেক রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক। ৬৭ বছর বয়সে কুমিল্লার হনুফা আক্তার রিক্তাকে বিয়ে করেন তিনি। এরপর ২০১৬ সালের মে মাসে তিনি কন্যাসন্তানের বাবা হন। তার ঠিক দুই বছর পর ২০১৮ সালের ১৫ মে তাদের ঘর আলো করে আসে যমজ পুত্রসন্তান।

আজ রোববার (৩১ অক্টোবর) সাবেক এই রেলমন্ত্রীর সপ্তম বিয়েবার্ষিকী’। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সঙ্গে বিয়ের বেশ কিছু ছবিও শেয়ার করেছেন মুজিবুল হক।

স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘আজ আমাদের সপ্তম বিয়েবার্ষিকী’। প্লিজ সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’ তার এই ছোট্ট স্ট্যাটাস ২ ঘণ্টার মধ্যেই ৭ হাজারের বেশি লাইক, প্রায় এক হাজার কমেন্টস এবং ১৬০টি শেয়ার হয়েছে।

আরও পড়ুন=চট্টগ্রাম টেস্টে প্রথম ইনিংসে লিটনের সেঞ্চুরি ও মুশফিকের ৯১ রানে ভর করে ৩৩০ রান করে বাংলাদেশ।কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে যেন মুখ থুবড়ে পড়েন মুমিনুলরা।প্রথম সারির তিন ব্যাটসম্যান মিলে করেন মাত্র ১ রান।শেষের দিকে চার রান করতে হারায় চার উইকেট।ফলে প্রথম ইনিংসে ৪৪ রান লিড থাকার পরেও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতায় ২০২ রানের লিড পায় বাংলাদেশ।কিন্তু পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের সামনে স্বল্প পুঁজির এই রান নিয়ে পাত্তা পায়নি বাংলাদেশের বোলাররা।শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরে গেছে বাংলাদেশ দল।

লিটন,মুশফিকের ব্যাটিং ও তাইজুলের দুর্দান্ত বোলিংয়ে পঞ্চম দিন পর্যন্ত লড়াই করেছে বাংলাদেশ।তাতে মনে হয়েছে চট্টগ্রাম টেস্ট কিছুটা সময়ের জন্য হলেও বাংলাদেশের হাতে ছিলো।কিন্তু সেটি মানতে নারাজ টাইগার দলপতি মুমিনুল হক। তিনি মনে করেন, কখনোই ম্যাচ তাদের হাতে ছিলো না।

চট্টগ্রাম টেস্টে হারের পর ম্যাচ প্রসঙ্গে মুমিনুল হক বলেন, আমার কাছে মন হয় কনট্রোল আপনাদের কাছে মনে হলেও আমার কাছে মনে হয় কনট্রোল কখনোই ছিলাম না আমরা।আমার কাছে মনে হয়, মুশফিক ভাই লিটন ভালো ব্যাটিং করছে। তাদের ভালো ব্যাটিং করার কারনে হয়তো আমরা কিছুটা কনট্রোল করতে পেরেছি।তাইজুল ভালো বল করেছে। হয়তো এটার কারনে আমরা চার দিন পর্যন্ত টিকে ছিলাম।’তিনি আরও বলেন, ‘আমার মতে, দুই ইনিংসেই প্রথম ঘণ্টায় আমরা ম্যাচটি হেরে গেছি। প্রথম ইনিংসে মুশফিক ও লিটন খুব ভালো খেলেছে। তারা দারুণ জুটি গড়েছে।দ্বিতীয় ইনিংসে… আমার মতে প্রথম চার ব্যাটারকে এগিয়ে আসতে হবে।’

আরও পড়ুন