শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ০৫:২১ পূর্বাহ্ন

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে সমুদ্রে সৃষ্ট নিম্নচাপে সারাদেশের ন্যায় রাজধানীতেও গত দুদিন ধরে বৃষ্টি হচ্ছে। সোমবার (৬ ডিসেম্বর) সকাল থেকে অঝোর ধারার বৃষ্টিতে সড়কে গণপরিবহনসহ রিকশা ও অন্যান্য যানবাহনের সংখ্যা অনেকটাই কমে গেছে। এতে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের যথাসময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছাতে পোহাতে হয়েছে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ।

এই প্রতিকূল আবহাওয়ায় এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের দুর্ভোগ কমাতে রাজধানীর ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. সাইদুল ইসলাম নিজ বিভাগের এডিসিসহ সব জোনের এসিদের নিজেদের সরকারি গাড়িতে করে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে দিতে সহযোগিতা করার নির্দেশনা দেন।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের এসি ট্রাফিক ডেমরা জোন শ্যামপুর কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের, এসি ট্রাফিক যাত্রাবাড়ী জোন দনিয়া কলেজ কেন্দ্রের, এসি ট্রাফিক ওয়ারী জোন সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের সরকারি গাড়িতে ও অন্যান্য স্থানে দায়িত্বরত সার্জেন্টরা নিজেদের মোটরসাইকেলে করে অর্ধশতাধিক এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে সময়মতো পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে দেন।বৃষ্টিস্নাত দিনে নির্দিষ্ট সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছাতে পেরে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা ট্রাফিক পুলিশকে ধন্যবাদ দিয়ে কৃতজ্ঞতা জানান।

ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. সাইদুল ইসলাম জাগো নিউজকে জানান, একদিকে সকাল থেকে রাজধানীতে মুষলধারে বৃষ্টি, অন্যদিকে এইচএসসি পরীক্ষা। এমন দিনে গণপরিবহন সংকট দেখা দেয়। এজন্য সকাল থেকে আমার বিভাগের সব কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়, তারা যেন নিজেদের গাড়িতে করে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে দেয়।

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন আটকে থাকার পর গত বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা।

এ বছরের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় দেশের নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড এবং মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মিলিয়ে প্রায় ১৪ লাখ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। গত বছরের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী বেড়েছে ৩৩ হাজার ৯০১ জন।

আরও পড়ুন