বুধবার, ২৯ Jun ২০২২, ০৭:০৫ অপরাহ্ন

চট্টগ্রামে মারজিয়া আক্তার নামে এক রোহিঙ্গা নারীকে পু’লিশে দিয়েছেন মনসুরাবাদ পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তারা। মি’থ্যা পরিচয়ে তিনি সেখানে পাসপোর্ট করতে গিয়েছিলেন। রোববার ওই নারীকে ডবলমুরিং থানা পু’লিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন একই থা’নার পুলিশ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মানিক ঘোষ।

তিনি বলেন, কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালিয়ে এসে মিথ্যা ঠিকানা ব্যবহার করে পাসপোর্ট করতে চেয়েছিলেন মারজিয়া আক্তার। তার কথাবার্তায় সন্দেহ হলে পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তারা তাকে ডবলমুরিং থা’না পু’লিশে সোপর্দ করেন।

আঙুলের ছাপ পরীক্ষা করে দেখা যায়, কক্সবাজারের কুতুপালং ক্যাম্পে ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা হিসেবে ওই নারী নিবন্ধিত হন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন যে, তিনি রোহিঙ্গা। তার বিরুদ্ধে মা’মলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

পাসপোর্ট কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামের সন্দ্বীপের বাসিন্দা পরিচয় দিয়ে পাসপোর্টের আবেদন করেছিলেন মারজিয়া। এজন্য তিনি আবেদনের সঙ্গে জন্মসনদ, মা-বাবার জাতীয় পরিচয়পত্র দেন। কিন্তু তার কথাবার্তায় সন্দেহ হয়। আঙুলের ছাপ পরীক্ষা করে দেখা যায়, তিনি কক্সবাজারের কুতুপালং ক্যাম্পের নিবন্ধিত রোহিঙ্গা। – ঢাকা পোস্ট

আরও পড়ুন