শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:০৯ অপরাহ্ন

বাগেরহাটে গভীর রাতে কৌশলে ঘরে ঢুকে শিশুসন্তানকে হ’ত্যার ভয় দেখিয়ে এক নারীকে ধ’র্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার গভীর রাতে বাগেরহাট সদর উপজেলায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।এ সময় ধ’র্ষণের দায়ে অভিযুক্ত রুবেল হাওলাদার (২৫) নগদ ৪৭ হাজার টাকা, দুই জোড়া স্বর্ণের কানের দুল ও একটি স্বর্ণের চেন লুটে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই নারী।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার নির্যাতিতা নারীর স্বামীর অভিযোগের ভিত্তিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্থানীয় সজল মল্লিক (২৫) নামের এক যুবককে আট’ক করেছে পু’লিশ।ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।ধ’র্ষ’ণের দায়ে অভিযুক্ত রুবেল হাওলাদারকে আ’টকের জন্য অভিযান শুরু করেছে পু’লিশ। রুবেল হাওলাদার বাগেরহাট সদর উপজেলার পোলেরহাট এলাকার বাসিন্দা।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক সজল মল্লিক বাদেকাড়াপাড়া এলাকার মফিজ মল্লিকের ছেলে। সজল এলাকায় রাজমিস্ত্রির কাজ করেন।নির্যা’তিতা নারীর স্বামী একটি বেসরকারি ব্যাংকের নিরাপত্তাকর্মী বলেন, সোমবার আমার নাইট ডিউটি ছিল। এ সুযোগে সজল মল্লিকের সহযোগিতায় রুবেল হাওলাদার আমার ঘরে প্রবেশ করে। ঘরে প্রবেশ করে একমাত্র সন্তানকে জিম্মি করে আমার স্ত্রীকে ধ’র্ষণ করে রুবেল। ঘরে থাকা নগদ ৪৭ হাজার টাকা, দুই জোড়া স্বর্ণের কানের দুল ও একটি স্বর্ণের চেন লুটে নেয় রুবেল। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

নির্যাতিতা ওই নারী বলেন, সিটকানি খুলে রুবেল মল্লিক ঘরে প্রবেশ করে আমার মেয়েকে হ’ত্যার ভয় দেখিয়ে আমাকে ধ’র্ষ’ণ করে। এ সময় রুবেল বাইরে লোকজনের আনাগোনা টের পেলে, রুবেল বলে সজল বাইরে আছে। সজলই আমাকে নিয়ে আসছে। ধ’র্ষণ শেষে রুবেল ঘরে থাকা নগদ ৪৭ হাজার টাকা, দুই জোড়া স্বর্ণের কানের দুল ও একটি স্বর্ণের চেন লুটে নেয়। আমি এর সঠিক বিচার চাই।

বাগেরহাট সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পু’লি’শ সুপার মাহমুদ হাসান বলেন, নির্যাতিতা নারীর স্বামীর অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সজল মল্লিক নামের এক যুবককে আট’ক করেছি। নির্যাতিতা ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

ধ’র্ষ’ণের অভিযোগে অভিযুক্ত রুবেল হাওলাদারকে আটকের জন্য পু’লিশ অভিযান শুরু করেছে। এ ঘটনায় মা’মলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন