সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৮:৫০ অপরাহ্ন

প্রথম ম্যাচে অনেকগুলো সুযোগ পেয়েও তা কাজে লাগাতে না পারায় নেপালের বিপক্ষে জয়বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ। শুরুতেই ড্র করে মনভার করে মাঠ ছাড়া জিদ্দি মেয়েরা দারুণভাবে জ্বলে ওঠে দ্বিতীয় ম্যাচেই। নেপালকে ৬-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দেয়ার পর এবার বাঘিনীরা হারাল ফেভারিট ভারতকেও। যাতে ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ শীর্ষেই থাকল বাংলাদেশের মেয়েরা।

এবারের সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতকে ফেভারিট দল হিসেবেই বিবেচনা করা হচ্ছে। কিন্তু মাঠের খেলায় তাদেরকে সুবিধা করতে দেয়নি স্বাগতিক বাংলাদেশ। পেনাল্টি থেকে লক্ষ্যভেদ করে জয় ছিনিয়ে এনেছে গোলাম রব্বানী ছোটনের দল। শুক্রবার রাউন্ড রবিন লিগ পর্বে ভারতকে ১-০ গোলে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে বসেছে বাংলাদেশ।

এই জয়ে বাংলাদেশ ৩ ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রতে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ফাইনালে খেলার পথে এগিয়ে গেল এক ধাপ। সমান ম্যাচে প্রথম হারে আগের ৬ পয়েন্টেই থাকল ভারত। এখন রবিন লিগের অপর ম্যাচে নির্ধারণ হবে ফাইনালে যাবে কোন দুটি দল।

এদিন কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে দুই দলই খেলেছে আক্রমণ প্রতি-আক্রমণ করে। ম্যাচে স্বাগতিকরা নামে একাদশে তিনটি পরিবর্তন এনে। আনুচিং মোগিনী, সাহেদা আক্তার রিপা ও আফয়েইদা খন্দকারের জায়গায় শুরু থেকে খেলেছেন নিলুফা ইয়াসমিন নীলা, শামসুন্নাহার জুনিয়র ও মার্জিয়া।

যার ফলে ম্যাচের শুরুতেই সাফল্য পায় বাংলাদেশ। ষষ্ঠ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে লিড পায় স্বাগতিকরা। বক্সে ঢুকতে না ঢুকতেই তহুরা খাতুনকে ফেলে দেন ভারতীয় ডিফেন্ডার ক্রিতিনা দেবী। মুহূর্তেই বেজে ওঠে পেনাল্টির বাঁশি। স্পটকিক থেকে জোরালো শটে জাল কাঁপান শামসুন্নাহার সিনিয়র। বলের লাইনে ঝাঁপালেও নাগাল পাননি গোলকিপার আনশিকা।

পিছিয়ে থেকে চড়াও হয়ে খেলতে থাকে ভারত। কিন্তু প্রথমার্ধে ‘ক্লিয়ার’ কোনও সুযোগ সেভাবে তৈরি করতে পারেনি সফরকারী দলটি। বরং ৩৬ মিনিটে বাংলাদেশ ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ নষ্ট করে। প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে আঁখি খাতুনের নেয়া ফ্রি কিক নিচু হয়ে পোস্টে ঢোকার মুখে শেষ মুহূর্তে গোলকিপার হাত দিয়ে ফিরিয়ে দেন।

বিরতির পরও একই ধারায় চলতে থাকে খেলা। ৫২ মিনিটে ঋতুপর্ণা চাকমার শট ব্লক করে দলকে গোল হজম থেকে রক্ষা করেন ভারতীয় এক ডিফেন্ডার। ৩ মিনিট পর বক্সের বাইরে থেকে ভারতের আমিশা বাক্সলার জোরালো শট গোলকিপার রুপনা চাকমা কোনোমতে প্রতিহত করেন। ৫৭ মিনিটে ঋতুপর্ণার কর্নারে আঁখির হেড গোলকিপার হাত দিয়ে প্রতিহত করেন।

এরপর দুই দল চেষ্টা করেও গোলের দেখা পায়নি। তবে শুরুর ওই গোলেই ফেভারিট ভারতকে হারিয়ে জয়ের আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন