বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ১০:৩৫ অপরাহ্ন

দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির চেয়ারপার্সন পদে খালেদা জিয়ার বিকল্প ভাবা হচ্ছে। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান হলেও লন্ডনে পলাতক থাকায় দলে নেই রাজনৈতিক চাঞ্চল্য। তাই নিরুপায় হয়ে মাকে সরিয়ে স্ত্রী জোবায়দা রহমানকে বিএনপি প্রধান করতে চাইছেন তারেক।

জানা গেছে, তারেক রহমানের গাফিলতিতে বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ছেন। আইনি পথ না খোঁজায় খালেদা জিয়ার দণ্ডিত জীবন দীর্ঘ হচ্ছে। এজন্য দলের প্রধান হিসেবে বেগম খালেদা জিয়ার বিকল্প হিসেবে জোবায়দা রহমানকে ভাবছেন তারেক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক এক উপ-সম্পাদক বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে রেখে দলের কাউন্সিল হোক বা তার মুক্তির পর কাউন্সিল হোক, দলীয় প্রধান হিসেবে খালেদা জিয়ার বিকল্প ভাবা হচ্ছে। দলকে শক্তিশালী করতে জোবায়দা রহমানকে দলীয় প্রধানের দায়িত্বে আনতে চাইছেন তারেক রহমান।

তিনি আরো বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক যে অবস্থা তাতে তিনি মুক্তি পেয়ে বিএনপির হাল কতটুকু ধরতে পারবেন তা অনিশ্চিত। স্বাভাবিকভাবে, খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে দলের প্রধান হবেন তারেক রহমান। কিন্তু তার দেশে ফেরা প্রায় অনিশ্চিত। এজন্য জোবায়দা রহমানকে যোগ্য বিকল্প মনে করছেন তারেক রহমান।

এ বিষয়ে বিএনপির এক সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, জোবায়দা রহমানকে বিএনপির প্রধানের দায়িত্বে আনার সিদ্ধান্ত অযৌক্তিক। তিনি রাজনীতিতে অনভিজ্ঞ। বিএনপি প্রধান অনভিজ্ঞ হলে দলটি আরো করুণ দশায় পড়বে। বেগম জিয়ার বিকল্প কাউকে খুঁজতে হলে অবশ্যই তাকে রাজনৈতিকভাবে সচেতন ব্যক্তি হতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বেগম খালেদা জিয়া যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন তিনি দলের প্রধান হিসেবে যোগ্য। সংগঠনে খালেদা জিয়ার শূন্যতা অনুভূত হলে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান নেতৃত্ব দেবেন। কিন্তু মায়ের স্থানে বউকে আনার চিন্তা সমীচীন নয়।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি বিএনপির প্রাধান্য দেওয়া উচিত। তার মুক্তির আগে দলের কাউন্সিল করা উচিত হবে না। আর জোবায়দা রহমান সচেতন নারী বটে। কিন্তু রাজনৈতিক দলের প্রধান হিসেবে তার যাত্রা হবে কঠিন। – ডেইলি বাংলাদেশ

আরও পড়ুন