সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৬:৩৬ অপরাহ্ন

করোনার নয়া ধরন ওমিক্রন নিয়ে নতুন কিছু তথ্য জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। তারা বলছে, প্রতি দেড় থেকে তিনদিনে ওমিক্রন রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে। শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) এসব জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা।প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের চেয়ে উল্লেখযোগ্য দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে ওমিক্রন। জাতিসংঘের হেলথ এজেন্সি জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ৮৯টি দেশে শনাক্ত হয়েছে ওমিক্রন।

এদিকে বাংলাদেশে করোনাভাইরাস শনাক্তের হার ১ শতাংশের নিচে নেমেছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৯৭১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে ১২২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। এ নিয়ে দেশে শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৫ লাখ ৮০ হাজার ৮৭২ জনে। যেখানে শনাক্তের হার ০ দশমিক ৮৭ শতাংশ। শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ও কোভিড ইউনিটের প্রধান ডা. মো. ইউনুস স্বাক্ষরিত বিশেষ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়।

আরও পড়ুন=করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। এর বিস্তার রোধে বিভিন্ন টিকা প্রতিষ্ঠান বুস্টার ডোজ গ্রহণের পরামর্শ দিলেও সেই যুক্তিকে ভুল প্রমাণ করলেন ভারতের এক নাগরিক। ফাইজারের তিন ডোজ টিকা নিয়েও তিনি ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছেন। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক থেকে

সম্প্রতি ভারতে ফিরেছেন তিনি। তার দেহে করোনার ওমিক্রন ধরন শনাক্ত করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি মহারাষ্ট্রের মুম্বাই শহরে অবস্থান করছেন।এক বিবৃতিতে বৃহনমুম্বাই মিউনিসিপ্যাল করপোরেশন (বিএমসি) জানিয়েছে, গত ৯ নভেম্বর ভারতীয় বিমানবন্দরে নামার পর করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হন ২৯ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। এরপর তার নমুনা জিনোম সিকুয়েন্সিংয়ের জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়। শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) তার শরীরে ওমিক্রনের উপস্থিতি নিশ্চিত করা হয়েছে।

বিএমসি জানিয়েছে, আক্রান্ত ব্যক্তির কোনো শারীরিক উপসর্গ নেই। এরপরও বাড়তি সতর্কতা হিসেবে তাকে হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে। তাছাড়া, ওই রোগীর ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে যাওয়া দুইজন করোনা নেগেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

মহারাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ৪০ জন ওমিক্রন পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। আর ভারতে এই ধরনে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়ে গেছে।

আরও পড়ুন