সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ১০:১১ অপরাহ্ন

দিনভর কাঁকড়া ধরে নৌকার ছাউনিতে বসে রান্নার আয়োজন করছিলেন মুজিবর ও তার সঙ্গীরা। এরপর চুলোয় ভাত তরকারি চড়ানোর আগেই তার ওপর এক দানবীয় হামলা চালালো মানুষখেকো বাঘ। মুহূর্তেই তার ঘাড় ধরে নৌকা থেকে লাফিয়ে লাফিয়ে মুজিবরকে টেনে নিয়ে গেল সুন্দরবনের গহীন জঙ্গলে।

সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের পাকড়াতলী খালে এই ঘটনা ঘটে। বাঘ তাকে ধরে নিয়ে গেলেও সন্ধ্যা নাগাদ তার লা’শের কোনো হদিস মেলাতে পারেনি সঙ্গীরা।

মুজিবর রহমান সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নের পারশেমারী গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে। তার বয়স ৫০ এর কোটায়।

মুজিবরের সহকর্মী একই গ্রামের ইসমাইল হোসেন জানান, হঠাৎ করেই বাঘটি আমাদের নৌকার ওপর হামলা করে। আমরা বাঘটিকে পাল্টা আঘাত করার আগেই সে মুজিবরকে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে শুলোবন দিয়ে বনের গহীনে চলে যায়।

ইসমাইল জানান, ৪দিন আগে কৈখালি বনবিভাগ থেকে কাঁকড়া ধরার পাশ নিয়ে আমরা বনে এসেছিলাম। সোমবার আমরা দিনভর অনেক কাঁকড়া ধরেছি। খানিকটা ক্লান্ত হয়ে পড়ন্ত বেলায় বাঘের কবলে আমার এক ভাইকে হারালাম।

পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক এমএ হাসান জানিয়েছেন, তিনিও এ খবর পেয়েছেন। মুজিবরের সঙ্গে আরও ৪-৫ জন সঙ্গী ছিল। লাশ উদ্ধার না করতে পারায় তারা ফিরে এসেছে। মঙ্গলবার সকালে আমরা আবারও চেষ্টা করব মুজিবরের দেহ খুঁজে পাবার।

তিনি বলেন, গতবছর এই এলাকায় একজন মৌয়াল বাঘের হামলায় প্রাণ হারালেও তার লা’শ খুঁজে পাওয়া গিয়েছিল।

আরও পড়ুন