শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ১১:০৪ অপরাহ্ন

ছেলে না হয়ে মেয়ে হওয়ায় নবজাতক শিশুকে মাঠের মধ্যে ফেলে গিয়েছিলেন মা! তবে আপন মা ফেলে গেলেও ‘পরম স্নেহে’ তাকে রাতভর আগলে রাখলো একটি কুকুর। কুকুরটিও সদ্য মা হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের ছত্তীশগড়ের মুঙ্গেলী জেলার সরিসতাল গ্রামে। এ ঘটনায় ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য, বিস্ময়ে আচ্ছন্ন গোটা গ্রাম।

কয়েকদিন আগে দিনের শুরুতেই সকালে মাঠের কাছে একটি ঝোপের মধ্যে থেকে ছোট্ট শিশুর কান্নার আওয়াজ শুনতে পান কয়েকজন গ্রামবাসী। সেই আওয়াজ অনুসরণ করে ঝোপের কাছে পৌঁছাতেই চমকে ওঠেন তারা।

দু’চোখে বিস্ময় নিয়ে তারা দেখতে পান, সম্পূর্ণ ন’গ্ন অবস্থায় ঝোপের মধ্যে একটি শিশু শুয়ে রয়েছে। তখনও ওই নবজাতকের দেহে জুড়ে ছিল নাড়ি। শিশুটিকে দেখে যত না অবাক হয়েছিলেন গ্রামবাসীরা, তার চেয়ে বেশি বিস্মিত হয়েছিলেন পাশে প্রহরী হয়ে বসে থাকা একটি মা কুকুরের ভূমিকায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ওই ঝোপের মধ্যেই একটি কুকুরের বাচ্চা হয়েছিল। সেই বাচ্চাগুলোর পাশেই শোয়ানো ছিল শিশুটি। আর তার পাশেই অতন্দ্র প্রহরীর মতো বসে ছিল আর এক মা। নিজের সন্তানদের যেভাবে আগলে রাখে সে, ঠিক সেভাবেই মানবশিশুকেও যেন সারারাত আগলে রেখেছিল কুকুরটি। আরও আশ্চর্যের, শিশুটির দেহে একটি আঁচড় পর্যন্ত লাগতে দেয়নি সে।

স্থানীয়রা তখন পু’লিশে খবর দেন। সরিসতাল গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য মুন্নালাল প্যাটেল সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা কাজের জন্য বেরিয়েছিলাম। তখন সকাল ১১টা। হঠাৎই মাঠের কাছে এক শিশুর কান্নার আওয়াজ পেয়ে সেখানে যাই। গিয়ে দেখি একটি সদ্যোজাত শিশুকন্যা কুকুরের পাশে শুয়ে। মা কুকুর এবং তার বাচ্চাও ছিল সেখানে। রাতভর শিশুটিকে আগলে রেখেছিল কুকুরটি।’

তিনি আরও বলেন, সঙ্গে সঙ্গেই আমরা পু’লিশ এবং স্বাস্থ্য দফতরকে খবর দিই। পরে তারা ঘটনাস্থলে এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

আরও পড়ুন