শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০২:২২ পূর্বাহ্ন

সম্প্রতি স্মরণকালের ভ;য়া;বহ বন্যা দেখেছে মালয়েশিয়া। এতে বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতিসহ দেশটিতে প্রা’ণহানি ঘটেছে ১৪ জনের। টানা ২৪ ঘণ্টার বৃষ্টির পানিতে দেশটির ১৩টি রাজ্যের মধ্যে ৯টি রাজ্যই বন্যায় প্লাবিত হয়। এসময় বন্যার পানিতে সেলাঙ্গর রাজ্যের শাহআলম এলাকার অন্যতম চেইন সুপারশপ মাইডিন প্লাবিত হয়।

বুক সমান পানিতে সুপারশপের পণ্য ভেসে যায়। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে একদল মানুষ মাইডিন’র মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৭ বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের ৩১ জন অভিবাসীকে গ্রেফতার করেছে রাজ্য পুলিশ।

মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন বিভাগের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক বিবৃতিতে এসব কথা বলা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে বাংলাদেশের ৭, ইন্দোনেশিয়ার ১০, নেপালের ৯ ও মায়ানমারের ৫ জন অভিবাসী রয়েছে।

শাহ আলম জেলা পুলিশের প্রধান সহকারী কমিশনার বাহারুদ্দিন মাত তৈয়ব জানান, জেলা পুলিশ সদর দফতরের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (আইপিডি) তাদেরকে গ্রেফতার করেছে। ‘দণ্ডবিধির ৪৫৭’ ধারা অনুযায়ী মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে বলে তিনি এক বিবৃতিতে জানান।

তবে আটককৃতদের দাবি, টানা ২৪ ঘণ্টার বৃষ্টিতে চারদিকে বন্যার পানিতে ভেসে গেছে। তাদের খাবার ফুরিয়ে গিয়েছিল এবং বন্যার কারণে আশেপাশে খাবারের দোকান বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তাই তারা খাবারের জন্য মাইডিনে ছুটে গিয়েছিল।

এদিকে দেশটির পুলিশ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় চুরি বা লুটতরাজ করার কোনো সুযোগ নেই। যদি এই ধরনের কর্মকাণ্ড কেউ করে থাকে তাহলে দেশের প্রচলিত আইনে বিচার করা হবে।

এর আগে, এই ঘটনার সমন্বিত একটি ১১ সেকেন্ডের ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল।

তবে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, এই ঘটনা এমন ব্যক্তিদের দ্বারা সংঘটিত হয়েছে, যারা মারাত্মক বন্যায় খাদ্য সরবরাহ শেষ হয়ে যাওয়ার কারণে বেশ কয়েকটি দোকানে প্রবেশ করতে বাধ্য হয়েছিল।

আরও পড়ুন