বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ১০:৪৮ অপরাহ্ন

ভারতের কেরালার ঘটনা। সঙ্গী বদল করে বিশেষ সম্পর্কে জড়ানোর একটি চক্রের খোঁজ পেয়েছে রাজ্য পু’লিশ। ওই চক্রের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সাতজনকে এরই মধ্যে আট’ক করা হয়েছে।

পুলিশের ধারণা, কেরালা রাজ্যজুড়ে চক্রটি ছড়িয়ে পড়েছে। মূলত সমাজের ধনী এবং অভিজাত সমাজেই এ প্রবণতা ছড়িয়ে পড়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, অন্তত এক হাজার নারী-পুরুষ এই চক্রে জড়িত।

সেখানকার কারুকাচল থানায় একজন নারী তার স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে এলে পুরো ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। ওই নারীর অভিযোগ, তার স্বামী তাকে জোর করে অন্য পুরুষদের সঙ্গে বিশেষ সম্পর্কে জড়াতে বাধ্য করতে চেয়েছিলেন।

কায়ামকুলাম এলাকা থেকেও একই ধরনের অভিযোগ আগে এসেছে বলে পু’লিশ জানিয়েছে। পুলিশ জানতে পেরেছে, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে একদল লোক প্রথমে টেলিগ্রাম অ্যাপ বা মেসেঞ্জারে বিভিন্ন গ্রুপে ঢুকে পড়ে নারী-পুরুষদের সঙ্গে বন্ধু পাতিয়ে অনেককে এই কাজে প্ররোচিত করছে।

পু’লিশ মনে করছে, যৌনজীবনের একঘেয়েমি কাটাতে এ ধরনের প্রস্তাব একটা বড় অংশের মানুষের কাছে জনপ্রিয় হচ্ছে বলে তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।

চেঙ্গাচেরির ডেপুটি পু’লিশ সুপার আর শ্রীকুমার জানান, অভিযুক্তরা অধিকাংশই আলাপুঝা, কোট্টায়াম, এর্নাকুলামের মতো জেলার বাসিন্দা। অভিযোগকারী নারীর স্বামী ছাড়া আরো ছয়জনকে পুলিশ আটক করেছে। তবে এর সঙ্গে যুক্তদের সংখ্যা অনেক বেশি বলে পুলিশ নিশ্চিত। সংখ্যাটা এক হাজারের ওপর বলে তাদের প্রাথমিক অনুমান।
সূত্র : আনন্দবাজার।

আরও পড়ুন