শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩৯ অপরাহ্ন

ধনী হওয়ার স্বপ্ন কে না দেখে! প্রচুর টাকা, ঐশ্বর্যের কোনো কমতি থাকবে না, এমন জীবন কে না পেতে চায়। কিন্তু কখনও শুনেছেন, ধনী হয়েও সেই জীবন থেকে মুক্তি পেতে চাইছে কেউ? না, এটা কোনো গল্প বা কাহিনি নয়। বাস্তবেই এমন ঘটনা ঘটেছে ব্রিটেন। রেডিট-এ নিজের নাম না প্রকাশ করে তার এই উপলব্ধির কথা ব্যক্ত করেছেন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

খবরে বলা হয়, ৩৫ বছর বয়সেই এতো টাকা উপার্জন করেছেন যে এখন সেই জীবন থেকে মুক্তি পেতে চাইছেন। কোটিপতি হওয়া সত্ত্বেও সেই জীবনের প্রতি বিতৃষ্ণা চলে এসেছে। তাই আগের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন তিনি।

ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, কোটিপতি হওয়ার নেপথ্যে রয়েছে বিটকয়েন। ২০১৪-তে ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েন সম্পর্কে জানতে পারেন তিনি। তারপর থেকেই ডিজিটাল মুদ্রায় বিনিয়োগ করা শুরু করেন। দেড় বছরের মধ্যে তার সঞ্চয়ের পুরো টাকাটাই বিনিয়োগ করেন। ২০১৭-তে ২০ লক্ষ পাউন্ড (বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৩ কোটি টাকা) লাভ হয় তার। ২০১৯-এ ডিজিটাল মুদ্রা থেকে ২.৬ কোটি পাউন্ড (বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৩০৫ কোটি টাকা) আয় করেন। জীবনের সব শখ স্বাচ্ছন্দ্য মিটিয়েও এই বিপুল পরিমাণ টাকা শেষ করতে না পেরে বিরক্ত হয়ে উঠেছেন তিনি।

একজন কনটেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে একটি সংস্থায় মাসিক ২৫ লক্ষ টাকা বেতনে কাজ করতেন তিনি। বেতনের বেশির ভাগ টাকাই সঞ্চয় করতেন। ১০ বছর কাজ করার পর চাকরি ছেড়ে দেন। চাকরি জীবনে বিপুল টাকার মালিক এবং ঐশ্বর্যের স্বপ্ন দেখতেন। কিন্তু যখন কোটি কোটি টাকার মালিক হলেন, তখন বলছেন, এই বিপুল পরিমাণ টাকা তার জীবনে একঘেয়েমি এনে দিয়েছে।

আরও পড়ুন