শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩২ অপরাহ্ন

বাংলাদেশে দেড় বছর কারাভোগ শেষে নিজ দেশ ভারতে আপন ঠিকানায় ফেরত গেলেন মা-মেয়ে। সোমবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা বন্দর চেকপোস্ট দিয়ে এই দুজন ভারতীয় নারীকে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হয়।

তারা হলেন পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার কেষ্টগঞ্জ থানার বানপুর কুলোপাড়া গ্রামের শাসসুল মন্ডলের স্ত্রী মোছা. গোলে বিবি (৩৫) ও তার মেয়ে ছায়া খাতুন শোভা ( ১৮)। ২০২০ সালে ২৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের জীবনগন থানার গোয়ালপাড়া গ্রামে ডাক্তার দেখাতে এসে বিজিবির কাছে আটক হয় মা-মেয়ে। এরপর অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে জেল হয় তাদের। তারপর থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলা কারাগারে ছিলেন তারা।

গোলে বিবি জানান, তাদের গ্রামটি (কুলোপাড়া) ভারতের কাঁটাতারের বাইরে পড়ে যাওয়ায় বাংলাদেশের পার্শ্ববর্তী গ্রামে চিকিৎসাসহ জরুরি প্রয়োজনে তাদের যেতে হয়। মেয়ে অসুস্থ হলে ডাক্তার দেখাতে বাংলাদেশে বিনা পাসপোর্টে গিয়ে বিজিবি তাদের আটক করে। তবে কারাগারে কোনো অসুবিধা হয়নি। মুক্তি পেয়ে দেশে পরিবারের কাছে ফিরতে পারছি খুব ভালো লাগছে। বের হওয়ার সময় জেলার সাহেব নতুন পোশাক দিয়ে দিয়েছেন। আমরা খুব খুশি হয়েছি।

হস্তান্তর প্রক্রিয়ার সময় দর্শনা চেকপোস্টের শুন্যরেখায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিজিবির দর্শনা কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার শহিদুল ইসলাম, ইমিগ্রেশন ইনচার্জ এসআই আব্দুল আলীম, দর্শনা থানার এসআই মাহমুদল, চেকপোস্ট কমান্ডার হাবিলদার লোকমান হাকিম, চুয়াডাঙ্গা কারারক্ষী মো. হেলাল উদ্দিন প্রমুখ।

ভারতের পক্ষে ছিলেন বিএসএফ’র গেঁদে কোম্পানি কমান্ডার এসি নাগেন্দ্রর পাল, কেষ্টগঞ্জ থানার আইসি বাপিন মুখার্জি, কাস্টমস সুপারিনটেনডেন্ট সুব্রত মন্ডল, ইমিগ্রেশনের টুআইসি মি. সন্দীপ প্রমুখ। এ ছাড়াও এ সময় ভারতের মানবাধিকার সংগঠনের কর্মী, মিডিয়া কর্মী ও ফেরত যাওয়া নারীদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন